kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাজবাড়ীতে ব্যতিক্রমী আয়োজন

চারতলা পূজামণ্ডপের পাটাতন ভেঙে পানিতে, আহত ৫০

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুরে পানির ওপর বাঁশ দিয়ে নির্মিত চারতলার ব্যতিক্রমী পূজামণ্ডপটির পাটাতন ভেঙে প্রতিমাসহ অর্ধশতাধিক দর্শনার্থী পানিতে পড়ে গেছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত দুজনকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার পর থেকে পূজামণ্ডপটির প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেল ৫টার দিকে ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

পূজামণ্ডপ কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোবিন্দ বিশ্বাস জানান, ব্যতিক্রমী আয়োজনের ওই মণ্ডপটি দর্শন করতে গতকাল বিকেলে একসঙ্গে কয়েক হাজার মানুষ সেখানে ওঠে। মণ্ডপটির মাঝামাঝি স্থানে থাকা দ্বিতীয় ধাপের ‘নরকের দৃশ্যের’ গুহার প্রবেশমুখে হঠাৎ করেই ৩০ ফুট পাটাতন ভেঙে যায়। ফলে সেখানে থাকা অর্ধশতাধিক দর্শনার্থীসহ ১০টি প্রতিমা ২০ ফুট নিচে পানিতে পড়ে যায়। এতে আহত হয় বেশ কয়েকজন দর্শনার্থী। আহত পারুল রানী ও দিপু নামের দুজনকে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাঁদের ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঘটনার পর মণ্ডপটির প্রদর্শন বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, ‘মহাভারত সম্পর্কে জানুন’ স্লোগানকে সামনে রেখে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর সর্বজনীন দুর্গামন্দিরে এই আয়োজন করা হয়। সেখানে মহাভারত অবলম্বনে স্বর্গ ও নরকের কাহিনীকে ধারণ করে ২০৫টি দেব-দেবীর প্রতিমা তৈরি করা হয়। প্রায় ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে পুকুরের পানির ওপর ব্যতিক্রমী মণ্ডপ তৈরিতে কমপক্ষে ১০ হাজার বাঁশ, ছয় মণ লোহা ও বিপুল পরিমাণ কাঠ ব্যবহার করা হয়। শ্রমিকরা দুই মাস ধরে কাজ করে। মণ্ডপটি লম্বায় ২০০ ফুট, চওড়া ৪০ ফুট ও উচ্চতা ৫০ ফুট।


মন্তব্য