kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


যশোরে আ. লীগকর্মীকে গুলি করে হত্যা

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



যশোরে বাঁওড় নিয়ে বিরোধের জের ধরে আওয়ামী লীগের এক কর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে ছাতিয়ানতলা মল্লিকপুর এলাকায় এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত এজাজ আহমেদ (৪৫) যশোর সদর উপজেলার ঝাউদিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। দুই বছর আগে একই বিরোধের জের ধরে দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন এজাজের বড় ভাই শহিদুল ইসলাম।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল সকালে এজাজ ক্ষেতের মুলা বিক্রি করতে সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি বাজারে যান। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি ওই বাজার থেকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে ছাতিয়ানতলা মল্লিকপাড়া এলাকায় প্রতিপক্ষ মোস্তফা ওরফে মোস্ত মেম্বার ও তাঁর সহযোগী সবুজ তাঁকে থামায়। এরপর তারা এজাজকে গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন এজাজকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। তখন কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুর রশিদ তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। ডা. আব্দুর রশিদ জানান, এজাজের মাথার পেছনে গুলি লেগেছে। হাসপাতালে আনার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

নিহত এজাজের চাচাতো ভাই রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, গেড়াদিয়া-শালকের বাঁওড় ইজারা নিয়ে তাঁরা ঘের তৈরি করে মাছচাষ করে আসছিলেন। এ নিয়ে ওই এলাকায় মোস্ত মেম্বার ও তাঁর লোকজনের সঙ্গে তাঁদের বিরোধ চলছে।

রফিকুল অভিযোগ করেন, মোস্ত তাঁর লোকজন নিয়ে ওই ঘের দখলের চেষ্টা করে আসছিলেন। এই বিরোধের জের ধরেই এজাজকে হত্যা করা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। এর আগে ২০১৪ সালের ১৭ নভেম্বর এজাজের বড় ভাই আওয়ামী লীগের কর্মী শহিদুল ইসলামকে (৫০) একই প্রতিপক্ষ কুপিয়ে হত্যা করে।


মন্তব্য