kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আদালতে খালুর দায় স্বীকার

টাকার জন্য ট্যাংকে ফেলে শিশু হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজধানীর তুরাগ থানা এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনের পানির ট্যাংক থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ শিশুটির খালুকে গ্রেপ্তার করেছে।

গতকাল রবিবার এই ব্যক্তি আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন।

নিহত শিশুটির নাম সুরাইয়া আক্তার (৪)। তার বাবা মোতালেব হোসেন পেশায় রিকশাচালক এবং মা সোনিয়া বেগম পোশাক কারখানার কর্মী।

গত শনিবার রাতে কামারপাড়ার সোহেল রানার বাড়ি থেকে সুরাইয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। শিশুটি ওই দিন দুপুর থেকে নিখোঁজ ছিল।

তুরাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধারের পর শিশুটির খালু সবুজ মিয়াকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন তার বাবা মোতালেব হোসেন। পরে সবুজকে গ্রেপ্তার করা হয়। সুদের টাকার লেনদেন নিয়ে সুরাইয়ার মায়ের সঙ্গে সবুজের বিরোধ হয়। এই বিরোধের জের ধরেই শিশুটিকে পানির ট্যাংকে ফেলে দেয় সে। গতকাল রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে সবুজ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।


মন্তব্য