kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঢাকার চারপাশের নদী দখল ও দূষণ দেখলেন দুই মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজধানীর চারপাশের চার নদ-নদীর তীরে অবৈধ স্থাপনা ও সীমানা পিলারের বিষয়ে শিগগির জরিপ চালানো হবে। নদীর জায়গা যাতে আবার দখল না হয় সে জন্য ২০ কিলোমিটার ‘ওয়াকওয়ে’ নির্মাণ করা হয়েছে, আরো ৫০ কিলোমিটার নির্মাণ করা হবে।

নৌপরিবহনমন্ত্রী ও নদী রক্ষার্থে গঠিত টাস্কফোর্সের সভাপতি শাজাহান খান গতকাল রবিবার সদরঘাট থেকে আশুলিয়া হয়ে টঙ্গী নদীবন্দর পর্যন্ত এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শনের সময় এ তথ্য জানান। মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন টাস্কফোর্সের সদস্য গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পরাগ বেগম, বিআইডাব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক, বিআইডাব্লিউটিসির চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান, জাতীয় নদীরক্ষা কমিশনের সদস্য মো. আলাউদ্দিন প্রমুখ। তাঁরা ঢাকার চারদিকের নদ-নদী দখল ও দূষণ পরিস্থিতি দেখেন। শাজাহান খান নদীতীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, তীর ভরাট করে অবৈধ বালু-পাথরের ব্যবসা দ্রুত বন্ধের জন্য বিআইডাব্লিউটিএ এবং ঢাকা জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দেন।


মন্তব্য