kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

মামা ভাগ্নে গ্রুপের অত্যাচারে অতিষ্ঠ গৌরীপুরবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



নজরুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম ও ইমরুল হাসান খোকন (মামা-ভাগ্নে) বাহিনীর নির্যাতন, জমি জবরদখল ও মিথ্যা মামলায় অতিষ্ঠ ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের মাইজহাটি গ্রামের বাসিন্দারা। তাদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেই মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অনেকেই গ্রামছাড়া। এই বাহিনীর বিরুদ্ধে অগ্নিসংযোগ, চাঁদাবাজিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় তারা আত্মগোপনে থেকে সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। গতকাল শনিবার দুপুরে ঢাকায় একটি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন ব্যবসায়ী আতিকুর রহমান। এ সময় এলাকার লোকজন উপস্থিত ছিল।

আতিকুর রহমান অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে মামা-ভাগ্নে গ্রুপের সদস্যরা এলাকার মানুষের ওপর অত্যাচার চালিয়ে আসছে। সম্প্রতি প্রায় ৬০০ ব্যক্তি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশ মহাপরিদর্শক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছে। পাশাপাশি একাধিক মামলাও দায়ের করেছে তারা। তবে ওই বাহিনীর অত্যাচার কমছে না। বরং যারাই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কথা বলছে, তারাই হয়রানির শিকার হচ্ছে। নজরুল বাহিনীর বিরুদ্ধে মামলা তুলে না নেওয়ায় গত সপ্তাহে দিননাহার, শহিদুল্লাহ ও আব্দুল মান্নানকে বেধড়ক মারধর, বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়। নজরুলের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়। বর্তমানে আহতরা স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় মামলা হয়েছে।  

আতিকুর রহমান বলেন, মামা-ভাগ্নে বাহিনীকে চাঁদা না দেওয়ায় একজন সরকারি চাকরিজীবীর বিরুদ্ধে চার-পাঁচটি মামলা দেওয়া হয়েছিল। তবে তদন্তে ওই সব অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়। বর্তমানে ওই চাকরিজীবীকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। নজরুল বাহিনীকে চাঁদা না দিয়ে এলাকায় টেকাই সম্ভব হচ্ছে না। এই বাহিনীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপির হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।


মন্তব্য