kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


১০ টাকা মূল্যে চাল বিক্রি

তালিকা হয়নি, ফেরত গেল বরাদ্দের চাল

খুলনা অফিস   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সরকার হতদরিদ্র পরিবারগুলোর জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির কার্যক্রম শুরু করলেও খুলনার একটি উপজেলা ও অন্য দুটি উপজেলার ১২ ইউনিয়নের বাসিন্দারা বঞ্চিত হয়েছে। ইতিমধ্যে এসব এলাকার জন্য বরাদ্দ সেপ্টেম্বর মাসের চাল ফেরত গেছে।

দলীয় কোন্দল, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের দ্বন্দ্ব, তালিকা প্রণয়নে অস্বচ্ছতার কারণে বরাদ্দ চাল বিতরণ করা সম্ভব হয়নি। সে কারণে বরাদ্দের চাল ফেরত গেছে দিঘলিয়া উপজেলা, ডুমুরিয়ার চারটি ও পাইকগাছার আটটি ইউনিয়ন থেকে।

জেলার খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সরকার বিধবা, তালাকপ্রাপ্ত, স্বামী পরিত্যক্তা ও যেসব পরিবারে শিশু আছে তাদের হতদরিদ্র হিসেবে চিহ্নিত করে ১০ টাকা মূল্যের চাল বিক্রির নীতিমালা করেছে। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কার্যালয় ৯টি উপজেলার ৮৩ হাজার ৯৪৪ পরিবারের মধ্যে এ চাল বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। ৬৮টি ইউনিয়নের মধ্যে এ পর্যন্ত ৫৬টি ইউনিয়নে তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। দিঘলিয়া উপজেলায় চাল বিক্রির কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়া স্থানীয় জনপ্রতিনিধির গাফিলতির কারণে তালিকা হয়নি পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালী, সোলাদানা, লতা, দেলুটি, হরিঢালী, রাড়ুলী, গদাইপুর ও লস্কর ইউনিয়নে।

এসব ইউনিয়নের চাল ফেরত গেছে বলে উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম সিদ্দিকী জানিয়েছেন।

লস্কর ইউপি চেয়ারম্যান কে এম আরিফুজ্জামান তুহিন জানান, সাতটি ওয়ার্ডের তালিকা হলেও দুটি ওয়ার্ডে সংশ্লিষ্ট মেম্বারের অসহযোগিতার কারণে পূর্ণাঙ্গ তালিকা ঝুলে আছে।

একই উপজেলার লস্কর ইউনিয়নে নিয়োগপ্রাপ্ত ডিলার ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামসহ আরো কয়েকজন বলেন, সেপ্টেম্বর মাসের চাল বিতরণ করতে না পারায় তাঁরা বিপদে রয়েছেন।

পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (টিএনও) নাহিদ-উল-মোস্তাক সাংবাদিকদের বলেন, তালিকার কারণে হতদরিদ্র মানুষের বঞ্চিত হওয়ার দায় জনপ্রতিনিধিরা এড়াতে পারবেন না। কোথাও কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্যদিকে একই কারণে ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া, গুটুদিয়া, সাহস ও রূদাঘরা ইউনিয়নের হতদরিদ্ররা চাল পায়নি।

খুলনা জেলার ভারপ্রাপ্ত খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. ফরহাদ খন্দকার সাংবাদিকদের বলেন, তালিকা তৈরিতে জটিলতা হওয়ায় অনেক ইউনিয়নে চাল বিতরণ করা যায়নি। এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে তালিকা চূড়ান্ত করা হবে।


মন্তব্য