kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দুর্নীতির মামলায় খালেদার পক্ষে তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা অব্যাহত

আদালত প্রতিবেদক   

৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা করছেন আইনজীবীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার জেরার পর অবশিষ্ট জেরার জন্য আগামী ২০ অক্টোবর দিন ধার্য করা হয়েছে।

অন্যদিকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৩ নভেম্বর দিন ধার্য করা হয়েছে। ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু আহমেদ জামাদার দুই মামলায় সাক্ষ্য শুনানি শেষে পরবর্তী দিন ধার্য করেন।

রাজধানীর বকশীবাজার কারা অধিদপ্তরের প্যারেড মাঠে নির্মিত ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাসে মামলা দুটির বিচার চলছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক হারুন অর রশিদ নিজেই মামলার বাদী। এর আগে তিনি বাদী হিসেবে সাক্ষ্য দিয়েছেন। গত ২৯ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে সাক্ষ্য দেন। এর পর থেকে তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা শুরু হয়েছে। অবশিষ্ট জেরার জন্য আগামী ২০ অক্টোবর দিন ধার্য করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী দুদকের বিশেষ পিপি মোশারফ হোসেন কাজল বলেন, তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা শেষ হলে মামলাটির প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন। আসামির পক্ষে কোনো সাফাই সাক্ষী থাকলে আদালতে উপস্থাপন করতে পারবেন।

আলোচিত এ দুর্নীতি মামলায় জামিনে থাকা আসামি মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ গতকাল আদালতে উপস্থিত ছিলেন। মামলার অন্য দুই আসামি ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান পলাতক। মামলার আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তাঁর ছেলে তারেক রহমানের পক্ষে অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া গতকাল হাজিরা দেন।

এদিকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে গতকাল শুনানি হয়নি। আসামিপক্ষের সময় আবেদন মঞ্জুর করে আদালত ৩ নভেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেন। এ মামলায় জামিনে থাকা দুই আসামি বিআইডাব্লিউটিএর সাবেক ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান আদালতে হাজির ছিলেন। আরেক আসামি হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।


মন্তব্য