kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শ্রম প্রতিমন্ত্রীর ঘোষণা

গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ পেলেই অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ পেলেই অভিযান

গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া মাত্রই গৃহকর্মী বিষয়ক কেন্দ্রীয় মনিটরিং সেল অভিযান চালাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি ২০১৫ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে গঠিত গৃহকর্মী বিষয়ক কেন্দ্রীয় মনিটরিং সেলের প্রথম সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেন, সম্প্রতি গৃহকর্মীদের ওপর নির্যাতনের মাত্রা বেড়েছে। অনেক গৃহকর্মী সামান্য ভুলত্রুটির কারণে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। সরকার কোনোক্রমেই এসব অন্যায়-অমানবিক আচরণ সহ্য করবে না বলেই কেন্দ্রীয়ভাবে মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। এখন থেকে এ ধরনের ঘটনা জানতে পারলে সঙ্গে সঙ্গে মনিটরিং সেল অভিযান পরিচালনা করবে এবং নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি বাস্তবায়নের বিষয়ে সবাইকে অবহিত করতে সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে মনিটরিং সেলের শাখা কমিটি করা হবে।

মো. মুজিবুল হক বলেন, শ্রম আইন অনুযায়ী ১২ বছরের নিচে কোনো শিশুকে কোনো অবস্থায়ই কোনো কাজে লাগানোর সুযোগ নেই। তবে ১২ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ নয় এমন হালকা কাজে নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে। গৃহকর্মী নিয়োগ দিতে হলে তার কর্মঘণ্টা, মজুরি নির্ধারণ, সাপ্তাহিক ছুটি ও থাকার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি ২০১৫ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে গত ১৩ জুলাই ২২ সদস্যের এই কেন্দ্রীয় মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী মনিটরিং সেলের চেয়ারম্যান এবং মন্ত্রণালয়ের সচিব ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন।

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মনিটরিং সেলের প্রথম সভায় উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম, মন্ত্রণালয়ের সচিব মিকাইল শিপার, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের মহাপরিদর্শক সৈয়দ আহমদ, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মামুদ, বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট সালমা আলী, গৃহ শ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্কের সমন্বয়কারী সৈয়দ সুলতান উদ্দিন আহম্মেদসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা ও সংগঠনের নেতারা। পরে মনিটরিং সেলের সদস্যরা ঢাকা মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন চাঁদপুরের নির্যাতিত শিশু গৃহকর্মী জান্নাতুল ফেরদৌসকে দেখতে যান। তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন তাঁরা। ওই সময় শ্রম প্রতিমন্ত্রী জান্নাতের চিকিৎসার জন্য শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল থেকে ৫০ হাজার টাকা সহায়তার ঘোষণা দেন।


মন্তব্য