kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইমদাদুল হক মিলনের বই সুইডেনের বইমেলায়

সাব্বির রহমান খান, সুইডেন থেকে   

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সুইডেনের গোথেনবার্গে অনুষ্ঠিত বইমেলায় কালের কণ্ঠ সম্পাদক ও কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের বই প্রকাশিত হয়েছে। গত ২২ সেপ্টেম্বরে শুরু হওয়া চার দিনব্যাপী এ বইমেলা বিশ্বের বৃহত্তম বইমেলাগুলোর মধ্যে অন্যতম।

১৯৮৫ সালে শুরু হওয়া এ বইমেলার এবারের প্রতিপাদ্য ছিল বাকস্বাধীনতা ও মত প্রকাশের অধিকার। মেলায় এবার ২৭টি দেশের আট শর অধিক প্রকাশক ও লেখক অংশগ্রহণ করছেন। এ বইমেলায় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লক্ষাধিক দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে।   

দৈনিক কালের কণ্ঠ সম্পাদক ও কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের বইমেলায় প্রকাশিত সুইডিশ ভাষায় অনূদিত বইটি বেঙ্গলি-নর্ডিক সাহিত্য বিনিময় ২০১৬ শীর্ষক সেমিনারে আলোচিত হয়। লেখক নিজেই এ সেমিনারের প্রধান বক্তা হিসেবে তাঁর বক্তব্য তুলে ধরেন। ইমদাদুল হক মিলন তাঁর বক্তব্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের লেখক-সাহিত্যিকদের মধ্যে একান্ত মতবিনিময়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে ‘গোথেনবার্গ বইমেলা’র ভূয়সী প্রশংসা করেন। এ বইমেলার ধারাবাহিক কর্মসূচির আওতায় তিনি নরওয়ে ও সুইডেনের পাঁচটি শহরে অন্তত ১০টি সেমিনারে অংশগ্রহণ করে বক্তব্য দেন। নরওয়ের রাজধানী অসলোতে গত ২০ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া ‘সাহিত্য ও মত’ বিনিময়ের এই কর্মসূচির আওতায় সুইডেন ও নরওয়ের বিভিন্ন লেখক সংঘ, পেন ইন্টারন্যাশনাল, রাইটারস ইন প্রিজন কমিটি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল পোয়েট্রি কাউন্সিলসহ বিভিন্ন সংগঠন অংশগ্রহণ করে। সম্মেলনে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন সেমিনারে দেওয়া তাঁর বক্তব্যে তিনি বাংলাদেশের সাহিত্যের ইতিহাস, সাম্প্রতিক সাহিত্যচর্চা, নতুন প্রজন্মের সাহিত্যচর্চা এবং বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি লেখকদের লেখনীর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তাঁর বক্তব্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত লেখক, প্রকাশক ও দর্শকদের ভূয়সী প্রশংসা কোড়ায়।

এ ছাড়া গোথেনবার্গের বইমেলায় তাঁর প্রকাশিত শিশুদের রূপকথার বই এবং বাংলাদেশি লেখকদের সাহিত্যকর্মের অনুবাদ নিয়ে দুটি সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সেশনগুলোতে অন্যান্যের মধ্যে আলোচক হিসেবে ছিলেন কবি মাহমুদুল আমিন, মোনালিসা খান, সুইডিশ লেখক লারস হ্যগার, ক্রিস্টিঅ্যান কার্লসন, লারস ব্রুসটেড প্রমুখ। নেটওয়ার্কার সাউথ নর্থ ও উপশালা সাহিত্যকেন্দ্রের আমন্ত্রণে ২৭ ও ২৮ সেপ্টেম্বর আয়োজিত দুটি পৃথক অনুষ্ঠানে ইমদাদুল হক মিলন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন। সুইডেনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে সাহিত্য রচনার বিভিন্ন দিক নিয়ে পরামর্শমূলক বক্তব্য দেন।


মন্তব্য