kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আযিযুল হক কলেজে ছাত্রলীগকর্মী হত্যা

পুলিশের কাজে বাধা, হামলার অভিযোগে আরেকটি মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বগুড়ার সরকারি আযিযুল হক কলেজে ছাত্রলীগকর্মী ইব্রাহীম  হোসেন ওরফে সবুজ (২১) হত্যার ঘটনায় আরো একটি মামলা হয়েছে। গতকাল রবিবার পুলিশ বাদী হয়ে মামলাটি করে।

মামলায় আযিযুল হক কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি বেনজির আহমেদকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। মোট আসামি সংগঠনটির ৬৯ নেতাকর্মী।

পুলিশের কাজে বাধা, হামলা ও মোটরসাইকেল পোড়ানোর অভিযোগ এনে সদর থানায় মামলাটি করেন শহরের স্টেডিয়াম পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত উপপরিদর্শক আল মামুন।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রিকশা ভাড়া নিয়ে বিতণ্ডার জের ধরে সরকারি আযিযুল হক কলেজের পুরনো ভবন এলাকায় কলেজ ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় ছুরিকাঘাতে নিহত হন ছাত্রলীগকর্মী সবুজ।

গতকাল এ ঘটনায় করা মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, ছাত্রলীগ নেতা বেনজির আহমেদের নেতৃৎত্বে আসামিরা আযিযুল হক কলেজের নতুন ভবনের সামনে সাতমাথা-তিনমাথা সড়ক অবরোধ করে। এ সময় বেনজির ও তাঁর সহযোগীরা দায়িত্বরত অবস্থায় থাকা এসআই আল মামুনের ওপর হামলা চালায়। একপর্যায়ে তারা আল মামুনের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আসলাম আলী কালের কণ্ঠকে মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এর আগে ছাত্রলীগকর্মী সবুজ হত্যার ঘটনায় তাঁর চাচা হারুনুর রশিদ বাদী হয়ে গত শুক্রবার রাতে সদর থানায় একটি মামলা করেন। এতে শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ওরফে নুরুকে প্রধান আসামি করা হয়। এ মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় ১২ ব্যক্তিসহ মোট ২৮ জনকে আসামি করা হয়েছে। পুলিশ তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।


মন্তব্য