kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঢাকায় সেমিনারে বক্তারা

সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে বিকল্প নেই সচেতনতার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে বিকল্প নেই সচেতনতার

সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা বিষয়ে গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে সবার আগে দরকার সচেতনতা। শিশু থেকে বৃদ্ধ, শহর থেকে তৃণমূল পর্যন্ত সব খানে দরকার এ প্রচেষ্টা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস (সিসিএ) ফাউন্ডেশন যে কাজটি করছে এটি মূলত সরকারেরই কাজ। এ জন্য সংগঠনটির স্বেচ্ছাসেবকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তারা। তাঁরা বলেছেন, আগামী দিনে সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগে সাইবার সচেতনতায় কর্মসূচি নেওয়া হবে।

‘সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস-২০১৬’ উপলক্ষে গতকাল শনিবার রাজধানীতে আয়োজিত এক সেমিনারে এসব কথা বলেন বক্তারা। সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। মাসের প্রথম দিনের আয়োজন ‘সাইবার নিরাপত্তা : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারটি সংগঠনের উপদেষ্টা তথ্যপ্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুক ইবনে আবুবকরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব (আইসিটি) শ্যাম সুন্দর শিকদার।

শনিবার থেকে শুরু হয়েছে সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস অক্টোবর। ২০০৪ সাল থেকে আমেরিকা, ২০১১ থেকে নরওয়ে এবং ২০১২ থেকে ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ এ মাসকে ‘সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস’ হিসেবে পালন করছে। সাইবার দস্যুতা থেকে নিরাপদে থাকতে মাসব্যাপী নানা কর্মসূচি নেওয়া হয় এ মাসে।   বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো এবার এটি পালনের উদ্যোগ নেয় সিসিএ ফাউন্ডেশন।

সেমিনারে মূল আলোচক ছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক মেরিল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. এম পান্না। কি-নোট উপস্থাপন করেন ইনফরমেশন সিস্টেমস অডিট অ্যান্ড কন্ট্রোল অ্যাসোসিয়েশনের (আই-সাকা) ঢাকা চ্যাপ্টার প্রেসিডেন্ট এ কে এম নজরুল হায়দার।

সেমিনারের নির্ধারিত আলোচক ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের কন্ট্রোলার অব সার্টিফাইং অথরিটিজের (সিসিএ) নিয়ন্ত্রক (যুগ্ম সচিব) আবুল মনসুর মোহাম্মদ শারফ উদ্দিন, সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার, সিসিএ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক রাশেদা রওনক খান ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্য রিপোর্ট টোয়েন্টিফোরডটকমের সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম মিন্টু।


মন্তব্য