kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


খুলনায় সেমিনারে বিএনপি মহাসচিব

বিদেশি প্রভুদের তুষ্ট করতেই রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র

খুলনা অফিস   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সুন্দরবনের কাছে রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের ক্ষেত্রে সরকার জনগণের স্বার্থ চিন্তা করছে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘বিদেশি প্রভুদের তুষ্ট রেখে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য তারা সুন্দরবনবিধ্বংসী রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে।

গতকাল শনিবার দুপুরে খুলনায় ‘দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়ন ভাবনা ও সুন্দরবন’ শীর্ষক এক জাতীয় সেমিনারে প্রধান অতিথির বত্তৃদ্ধতায় মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

নগরীর হোটেল টাইগার গার্ডেনের এসকেএস মিলনায়তনে এই সেমিনার আয়োজন করে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয়তাবাদী শিক্ষকদের সংগঠন ন্যাশনালিস্ট টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন (এনটিএ)।

সেমিনারে বিএনপি মহাসচিব বলেন, পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে বলছেন, রামপালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ হলে এর ফল শুভ হবে না। জীববৈচিত্র্য, প্রাকৃতিক ভারসাম্য ও মানুষের জীবন-জীবিকা ধ্বংস হবে। কিন্তু সরকার যেকোনোভাবে এখানেই বিদ্যুৎকেন্দ্র করতে চায়। সরকার এর বিরোধিতাকারীদের যেকোনোভাবে দমন করতে চায়। ঢাকায় সাইকেল শোভাযাত্রায় পুলিশ ও সরকারি দলের লোকেরা বাধা দিয়েছে, হামলা করেছে। তারা কোনো বিরোধী মত রাখতে চায় না।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘রামপালের বিকল্প আছে, সুন্দরবনের বিকল্প নেই। আমরা কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরোধী নই। আমরাও চাই বিদ্যুৎকেন্দ্র হোক; তবে তা কোনোভাবেই সুন্দরবনকে ধ্বংস করে নয়। ’ তিনি মনে করেন, সুন্দরবন কোনো রাজনৈতিক ইস্যু নয়, এটা জাতীয় ইস্যু। এতে দল-মত-নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

ইউনেসকোর সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনের উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ইউনেসকোও চাচ্ছে না বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের কাছে কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্র হোক।


মন্তব্য