kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মেয়ে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সিরাজগঞ্জে আট বছরের শিশুকন্যা সোহাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বাবা। তাঁর নাম সেলিম রেজা (৩৫)।

গত বৃহস্পতিবার রাতে পৌর এলাকার শহীদগঞ্জ মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে বাবা-মেয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

নিহত সেলিম রেজার ভাই মাহমুদুল আলম সম্রাট জানান, ৯ বছর আগে শাহজাদপুর উপজেলার মনিরামপুরের আনোয়ার পারভীন রুমার সঙ্গে সেলিম রেজার বিয়ে হয়। এর কিছুদিন পর সরকারি প্রাইমারি স্কুলে চাকরি পান রুমা। এ কারণে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় একা বসবাস শুরু করেন তিনি। এরপর জন্ম নেয় শিশুকন্যা সোহা মানিক। শিশুটির বয়স যখন ৪০ দিন তখন তাকে সেলিমের পরিবারের কাছে রেখে যান রুমা। এ নিয়ে রুমা ও সেলিমের মধ্যে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। একপর্যায়ে সেলিম জানতে পারেন রুমার সঙ্গে একজনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে মোবাইলে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হতো।

সম্প্রতি রুমা সেলিমকে ডিভোর্স দেন এবং অন্য এক ছেলেকে বিয়ে করেন। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে হতাশায় ভুগছিলেন সেলিম। এরপর বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটল।

সেলিমের মা সেতারা বেগম বলেন, ‘শিশু সোহাকে একজাতীয় কোমল পানীয়ের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাইয়েছিল সেলিম। এরপর শিশু সোহা ঘুমে অচেতন হয়ে যায়। এরপর গভীর রাতে বালিশ চাপা দিয়ে তার কন্যাকে হত্যা করে। বিষয়টি টের পেয়ে আমি বাধা দেওয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু সেলিম অন্য ঘরে গিয়ে আত্মহত্যা করে। ’

সদর থানার উপপরিদর্শক নুরুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের জের ও হতাশা থেকেই সেলিম এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলা করলে সে মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য