kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

খুলনায় বিয়ে মেলা

বর-কনে কই?

কৌশিক দে, খুলনা   

১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বর-কনে কই?

খুলনার অভিজাত হোটেল ক্যাসাল সালামে গতকাল বিয়ের মেলা দেখতে আসেন তরুণীরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

‘বিয়ে মেলায় কি বউ পাওয়া যায় নাকি? না পেলেও চল মেলাটা তো ঘুরে আসি। ’ খুলনায় অনুষ্ঠিত ব্যতিক্রমধর্মী বিয়ে মেলা নিয়ে বন্ধুদের কাছে এই উচ্ছ্বাস খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর।

শুধু শত শত তরুণ-তরুণী ও অভিভাবকের পদচারণে তিন দিন মুখরিত ছিল বিয়ে মেলা। নগরীর অভিজাত হোটেল ক্যাসাল সালামে এই মেলা বসে। পারপেল বার্ড ও আর্টিসম নামের দুটি ফটোগ্রাফি ও ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান এ মেলার আয়োজন করে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় এ মেলা শেষ হয়।

গতকাল মেলায় গিয়ে দেখা যায়, প্রদর্শনীর বিভিন্ন স্থানে দাঁড়িয়ে তরুণ-তরুণীরা সেলফি ও ছবি তুলে আনন্দময় সময় কাটিয়েছে। আবার আয়োজকদের সঙ্গে বিয়ের আয়োজনের খরচ নিয়ে কথা বলেছেন অভিভাবকরা।   

মেলায় আসা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী শেখ ইউসুফ বলেন, ‘খুলনার প্রতিভাবান একঝাঁক তরুণের সৃজনশীল আয়োজন এই বিয়ে মেলা। এখানে এসে আনন্দ পেয়েছি। সৃজনশীল কাজের ছোঁয়া পাওয়া গেছে মেলার প্রতিটি আয়োজনে। এক কথায় বিয়ের ফটোগ্রাফি, ভিডিও ধারণ এডিটিং, স্টেজ নির্মাণসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রচলিত ধারণা পাল্টে যাবে। পাশাপাশি তরুণরাও এ কাজে আগ্রহ দেখাবেন। ’

মেলা দেখতে আসা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা বন্ধুরা মিলে মেলা দেখতে এসেছি। ব্যতিক্রমধর্মী ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশে আমরা খুব মজাও করছি। পাশাপাশি মেহেদি এঁকেছি। এ মাধ্যম আমাদের কর্মসংস্থানের পথ দেখাচ্ছে। পাশাপাশি বিয়ের মতো জটিল একটি কাজকে সহজভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। ’ 

আয়োজকরা জানান, খুলনাসহ দেশবাসীকে বিয়ে সম্পর্কিত সব উপকরণের সমাহার একসঙ্গে উপহার দেওয়ার জন্য মূলত এ আয়োজন। এ ছাড়া বিয়ে একটি পবিত্র যাত্রা। দম্পতির এ যাত্রার সূচনাকালে সব প্রয়োজনীয় উপকরণের সহজ সন্ধান ও সমাধান দেওয়া, অনুষ্ঠান আয়োজনে সব দায়িত্ব নিশ্চিন্ত ও নির্বিঘ্নে আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে ছেড়ে দেওয়ার মানসিকতাও তৈরি করবে।

পারপেল বার্ডের সিইও ও মেলার আহ্বায়ক এস এম ইমরান হাসান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে ফটোগ্রাফি, ভিডিও এডিটিং, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, স্টেজ ডিজাইন, লাইটিং, ডিজেসহ বিভিন্ন সৃজনশীল কাজে সম্পৃক্ত রয়েছি। এ কাজে খুলনার একঝাঁক তরুণ ও উদ্যমী কর্মী আজ সারা দেশে কাজ করে চলছে। এরই ধারাবাহিতকায় আমাদের এ কাজকে সবার সামনে তুলে ধরতে দ্বিতীয়বারের মতো এ উদ্যোগ নিয়েছি। ’


মন্তব্য