kalerkantho


আখাউড়ায় বড় ভাইকে খুন করলেন আ. লীগ নেতা

পাঁচ স্থানে আরো এক হত্যা, চার লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় বড় ভাইকে খুন করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা। পাবনার সুজানগরে স্কুল ছাত্রকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। কুমিল্লায় গার্মেন্টকর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এক নারীকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে নিখোঁজ চা শ্রমিক, শরীয়তপুর সদরে যুবক ও দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর একজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : তুচ্ছ ঘটনার জেরে আখাউড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতার হাতে তাঁর বড় ভাই মো. ইদ্রিস মিয়া খুন হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার চানদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিকেল পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। ঘাতক নবীন মিয়া ধরখার ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। জানা যায়, গতকাল দুপুরে বাড়ির তারে কাপড় টানানো নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা নবীন মিয়া ও তাঁর বড় ভাই ইদ্রিস মিয়ার মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায় নবীন মিয়া ঘরে থাকা চল (মাছ ধরার উপকরণ) দিয়ে বড় ভাইয়ের বুকে আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। এলাকাবাসী তাঁকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিত্সক মৃত ঘোষণা করেন। এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার ওসি মোশারফ হোসেন তরফদার জানান, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার ও মামলার প্রস্তুতি চলছে।

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় হাইরুস টুডু নামের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে উপজেলার মহেশপুর গ্রামের একটি সেচ পাম্পের ঘর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পাবনা : সুজানগর উপজেলায় গত বুধবার রাতে ইমন হোসেন (১২) নামের এক স্কুল ছাত্রকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ভিটবিলা এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ইমন কাতিয়ান গ্রামের আয়েন উদ্দিনের ছেলে। সে কাদোয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ছিল। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ায় পড়াশোনার পাশাপাশি ইমন অটোভ্যান চালাত। অটোভ্যানটি ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে দুর্বৃত্তরা তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে গেছে বলে পুলিশের ধারণা।

কুমিল্লা : মহানগরের শাকতলা এলাকার একটি ফ্ল্যাটের ভাড়া কক্ষ থেকে গত বুধবার রাতে লিপি আক্তার নামের এক গার্মেন্টকর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জুলেখা নামের এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ। লিপি চান্দিনা উপজেলার বেলাশর গ্রামের এরশাদ মিয়ার মেয়ে। তিনি কুমিল্লা ইপিজেডের ‘নাসা গার্মেন্ট’র কর্মী ছিলেন। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিদ্যুত্ কর্মচারী ময়নাল হোসেন মণ্ডলের বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া নেন নাঙ্গলকোট উপজেলার পদুয়া গ্রামের আবদুল্লাহ ও তাঁর স্ত্রী জুলেখা। ওই ফ্ল্যাটের একটি কক্ষে ভাড়ায় থাকতেন গার্মেন্টকর্মী লিপি আক্তার। গত বুধবার সন্ধ্যায় জুলেখা ওই গার্মেন্টকর্মী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বলে প্রচারণা চালায়। পরে তিনি লিপিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। এর কিছুক্ষণ পর তাঁর লাশ নিয়ে ফ্ল্যাটে ফিরে আসেন জুলেখা। ঘটনার পর থেকে বাড়ির মালিক ময়নাল ও জুলেখার স্বামী আবদুল্লাহ পলাতক রয়েছেন।

মৌলভীবাজার : কমলগঞ্জ উপজেলার ভারতীয় সীমান্তবর্তী পাত্রখোলা চা বাগান থেকে নিখোঁজের দুই দিন পর দুদুয়া মোহালী নামের এক চা শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ওই বাগানের কাছে কালাপানি নামের একটি পাহাড়ি ছড়া থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। লাশের মাথা বালিমাটিতে পোঁতা ছিল। পা দুটি ছিল ওপরের দিকে।

শরীয়তপুর : সদর উপজেলার কীর্তিনাশা নদীর পাড় থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবকের (৩৫) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার রাজগঞ্জ আড়িগাঁও এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।


মন্তব্য