kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


এলপিজি খাত

১২০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে চায় থাই কম্পানি

শিমুল নজরুল, চট্টগ্রাম   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বাংলাদেশে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) প্লান্ট করতে আগ্রহী থাইল্যান্ডের একটি কম্পানি। এলপি গ্যাস খাতে ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ১২০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করার প্রস্তাব দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

থাইল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম এলপিজি প্রতিষ্ঠান সিয়াম গ্যাস অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যালস লিমিটেড সম্প্রতি জ্বালানি মন্ত্রণালয়ে তাদের আগ্রহের বিষয়টি প্রস্তাব আকারে পাঠিয়েছে। ভারতের পর এবার দ্বিতীয় দেশ হিসেবে থাইল্যান্ডের কোনো কম্পানি এলপি গ্যাস খাতে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চাইছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) পরিচালক (পরিকল্পনা ও পরিবহন) মীর আলী রেজা কালের কণ্ঠকে বলেন, সিয়াম গ্যাস অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যালসের প্রস্তাবটি এখন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে রয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে জ্বালানি মন্ত্রণালয়।

জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব পর্যায়ের এক কর্মকর্তা জানান, সিয়াম গ্যাস অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যালস বাংলাদেশে রাষ্ট্রায়ত্ত কম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে এলপিজি খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। তারা থাইল্যান্ড থেকে এলপিজি আমদানি করে বাংলাদেশে বিপণন করতে চায়। এ ক্ষেত্রে তারা বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত কম্পানির (পদ্মা, মেঘনা, যমুনা অয়েল) বিপণন চ্যানেল ব্যবহার করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

জ্বালানি মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে, সিয়াম গ্যাস অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যালস ঢাকায় তিন হাজার টন ধারণক্ষমতার স্টোরেজসহ আমদানিনির্ভর এলপিজি টার্মিনাল গড়ে তুলবে। তারা প্রতি কার্গোতে দুই থেকে আড়াই হাজার টন এলপি গ্যাস আমদানি করবে। এলপিজি প্লান্টটি বছরে ৬০ হাজার টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন হবে। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরের মধ্যে তারা প্রকল্পের কাজ শেষ করার পরিকল্পনা নিয়েছে। প্রস্তাবনায় আরো বলা হয়, বাংলাদেশে বিপণনের জন্য প্রতিষ্ঠানটি চার, ১৫ ও ৪৮ কেজি ওজনের এলপিজি সিলিন্ডার তৈরি করবে। প্রতি বছর সিলিন্ডারের মাধ্যমে তারা ১২ হাজার টন, রোড ট্যাংকারের মাধ্যমে আরো ৪৮ হাজার টন এলপি গ্যাস বিক্রি করার পরিকল্পনা নিয়েছে।

গত বছরের শেষ দিকে ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশন লিমিটেড বাংলাদেশে এলপিজি প্লান্ট স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি কক্সবাজার জেলার মহেশখালী দ্বীপে বড় প্লান্ট স্থাপনে আগ্রহী। এ ব্যাপারে তারা সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা করছে। আগামী ৩ অক্টোবর ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশন লিমিটেডের একটি প্রতিনিধিদলের বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে।

 


মন্তব্য