kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সৈয়দ হকের সমাধিতে শ্রদ্ধা ভক্তদের

আব্দুল খালেক ফারুক, কুড়িগ্রাম   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সৈয়দ হকের সমাধিতে শ্রদ্ধা ভক্তদের

কুড়িগ্রামে সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের সমাধিতে ভক্তদের শ্রদ্ধা। ছবিটি গতকালের। ছবি : কালের কণ্ঠ

কুড়িগ্রামে গতকাল বৃহস্পতিবার সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ভক্ত, অনুরাগী ও শিক্ষার্থীরা। সকাল থেকে ভক্তরা ভিড় করে কবরের পাশে।

দূর-দূরান্ত থেকে আসে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। তারা সেখানে নীরবে দাঁড়িয়ে বিশেষ মোনাজাত করে।

গতকাল দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শ্রদ্ধা জানাতে এসেছে সুরঞ্জন কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র সুরঞ্জন মজুমদার। তার হাতে একটি সবুজ মলাটের ডায়েরি। সে সৈয়দ শামসুল হককে নিয়ে একটি কবিতা লিখেছে, ‘বিশ্ব আসনে তুমি মহান কবি, শব্দপ্রেমীর ঘরে ঘরে আজ তোমার ছবি। ’ লেখকের মৃত্যুর খবর শুনেই তাত্ক্ষণিকভাবে একটি কবিতা লেখে সুরঞ্জন। গত বুধবার সারা দিন কবিতাটি নিয়ে অপেক্ষা করেছে সে। কবিতা দিয়ে কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। কিন্তু তা হয়ে না ওঠায় পরের দিন কবরের পাশে এসেছে।

সুরঞ্জন বলে, ‘আমি কবির একজন বড় ভক্ত। ইচ্ছা ছিল তাঁকে দেখার, তাঁর কবরে কবিতাটি দেওয়ার। কিন্তু প্রচণ্ড ভিড়ে দিতে পারিনি। ’

নাগেশ্বরী ডিগ্রি কলেজের ছাত্র আলাউদ্দিন ও শামীম এসেছে কবির কবর দেখতে। এসেছেন কুড়িগ্রাম শহরের ইলেকট্রিক মিস্ত্রি মোহাম্মদ আলীও।

রংপুর থেকে আসা পুলিশ লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী জুবায়ের বলে, ‘এত বড় একজন লেখক এখানে শায়িত আছেন। এটা আমাদের গর্বের। ’ ওষুধ কম্পানির প্রতিনিধি হাফিজুর রহমান বলেন, ‘গতকালও এসেছি। আজও এলাম। প্রাণটা পড়ে রয়েছে এখানে। ’ কুড়িগ্রাম আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও কলামিস্ট অ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন জানান, কবির কবরকে ঘিরে একটি বড় আকারের লাইব্রেরি ও মিউজিয়াম করা হবে। সেখানে কবির সংগৃহীত সব বই থাকবে। ’

গতকাল কুড়িগ্রাম থানাপাড়ার সৈয়দ হকের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, শান্ত, সুনসান বাড়ি। পাশ কাটিয়ে পথচলার সময় অনেকেই তাকাচ্ছে বাড়িটির দিকে।


মন্তব্য