kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ডাকাত খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ডাকাত খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

সোনার দোকানে ডাকাতির পর গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা হয়েছে। গত সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় ডাকাতি হলেও পুলিশ কাউকে আটক বা লুণ্ঠিত স্বর্ণালংকার উদ্ধার করতে পারেনি।

জিনজিরা বাজারের কালাচান প্লাজার গোবিন্দ জুয়েলার্সে ডাকাতির পর ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘটনার পর থেকে এলাকাটি থমথমে রয়েছে। অনেক দোকান বন্ধ রয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গোবিন্দ জুয়েলার্সের মালিক গোবিন্দ চন্দ্র বর্মণ থানায় মামলা করতে ভয় পাচ্ছিলেন। কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসির নিরাপত্তার আশ্বাসে তিনি মামলাটি করেন।

এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, ৮-১০ জন ডাকাত সোমবার রাতে জুয়েলার্সে এসে কয়েকটি বোমা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। তারা দোকানে ঢুকে মালিক, কর্মচারী তপন কুমার বর্মণ ও নুর উদ্দিনকে গালাগাল করে বের করে দেয়। দোকানে থাকা ৭০ ভরি স্বর্ণালংকার, ৪০ ভরি রুপার অলংকার, ক্যাশ থেকে ৩৬ হাজার টাকা ও সিসি ক্যামেরার যন্ত্রাংশ নিয়ে গেছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা শাওন আহমেদ বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় হেঁটে যেতে সময় লাগে মাত্র পাঁচ মিনিট। এত বড় ঘটনা ঘটল পুলিশ কিছু করতে পারল না?’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই মার্কেটের এক ব্যবসায়ী বলেন, ‘কিছুদিন আগেও জিনজিরা বাজারে সার্বক্ষণিক টহল পুলিশ থাকত। ’

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি ফেরদাউস হোসেন বলেন, ‘মামলার তদন্ত চলছে। ’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাজারে টহল সব সময় থাকে। এক জায়গায় বসে থাকলে তো আর হয় না। অনেক সময় আশপাশে যেতে হয়। ’

ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ্ মিজান শফিউর রহমান বলেন, ‘ডাকাতির ঘটনায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়নি। ’


মন্তব্য