kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপিতে আটকে রেখে গৃহবধূকে নির্যাতন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপিতে আটকে রেখে গৃহবধূকে নির্যাতন

অভিযুক্ত সদস্য আশরাফ আটক

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য আশরাফ ইসলামের বিরুদ্ধে এক গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতনের ১০ ঘণ্টা পর গত সোমবার রাতে ইউপির একটি কক্ষ থেকে গৃহবধূকে উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি ঠাকুরগাঁও আধুনিক সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইউপি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

সূত্র জানায়, জামালপুর ইউনিয়নের শিবগঞ্জ এলাকার বসির উদ্দিন ও মালেকা বেগমের মেয়ে নেহার বানুর সঙ্গে ইউপির ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আশরাফ ইসলামের ভাতিজা নুর ইসলামের (সম্পর্ক করে) বিয়ে হয় দেড় মাস আগে। এটি নেহারের দ্বিতীয় বিয়ে। নুরের পরিবার এ বিয়ে মেনে না নিলে নেহার ও নুর একই গ্রামে বাসা ভাড়া নিয়ে বাস করতে থাকেন। এদিকে নুরের পরিবার নেহারকে বিয়ে বিচ্ছেদের জন্য চাপ দিতে থাকে। নেহার রাজি না হলে সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আশরাফ ইসলাম ও তাঁর পরিবারের লোকজন নেহারকে ইউপিতে নিয়ে একটি কক্ষে আটকে রেখে বেধড়ক মারধর করে ও শুকনা মরিচের গুঁড়া শরীরে ঘষে দেয়। এতে তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঠাকুরগাঁও থানার পুলিশ খবর পেয়ে নেহারকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার ও আশরাফকে আটক করে। পরে নেহারকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

নেহার বানু বলেন, বিয়ে বিচ্ছেদে রাজি না হওয়ায় হঠাৎ সালিসের নাম করে আশরাফ ইসলাম ও তাঁর পরিবারের লোকজন নেহারকে ইউপিতে নিয়ে এসে আটক রেখে নির্যাতন চালায়। মালেকা বেগম তাঁর মেয়েকে নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচার ও দোষীদের শাস্তি দাবি করেছেন। একই দাবি এলাকাবাসীরও।

ঠাকুরগাঁও থানার তদন্ত কর্মকর্তা (এসআই) সিরাজুদ্দৌলা জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

অভিযুক্ত আশরাফ নির্যাতনের কথা অস্বীকার করেছেন। তবে ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম চৌধুরী ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তাঁকে না জানিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন ইউপি সদস্য আশরাফ। তিনি উপস্থিত থাকলে এ ধরনের ঘটনা ঘটত না। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি হলে এ ধরনের ঘটনা আর কেউ ঘটাতে সাহস পাবে না।

গৃহবধূর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান হাসপাতালের চিকিৎসক সারোয়ার রহমান।


মন্তব্য