kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সংসদ অধিবেশন শুরু, চলবে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত

এম এন লারমার মৃত্যুর ৩৩ বছর পর শোক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশন শুরু হয়েছে। গতকাল রবিবার বিকেলে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয়।

এই অধিবেশন আগামী ১০ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে। অধিবেশন শুরুর আগে অনুষ্ঠিত সংসদের কার্যোপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সংসদ অধিবেশনের শুরুতে গত ২৭ জুলাই শেষ হওয়া বাজেট অধিবেশনের পর প্রয়াত বিশিষ্ট ব্যক্তিদের জন্য শোক প্রস্তাব গ্রহণ ও মোনাজাত করা হয়। এর আগে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মনোনয়ন দেওয়া হয়। অধিবেশন শুরুর আগে সংসদ ভবনে সংসদের কার্যোপদেষ্টা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে চলতি অধিবেশন আগামী ১০ অক্টোবর পর্যন্ত চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। প্রতিদিন বিকেল ৫টায় অধিবেশন শুরু হবে। তবে প্রয়োজনে এ সময়সীমা স্পিকার বাড়াতে বা কমাতে পারবেন।

শোক প্রস্তাব গ্রহণ : প্রথম জাতীয় সংসদের সদস্য এম এন লারমা নামে খ্যাত মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার মৃত্যুর প্রায় ৩৩ বছর পর দশম সংসদে এসে আনুষ্ঠানিকভাবে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশের প্রথম সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার আগে ১৯৭০ সালের নির্বাচনে পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। স্বাধীনতার পর তিনি গণপরিষদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৩ সালের ১০ নভেম্বর তিনি প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত হন। তাঁর মৃত্যুর পর সংসদে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়নি। গত বাজেট অধিবেশনের আগে রাঙামাটির সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার জনসংহতি সমিতির প্রতিষ্ঠাতা এম এন লারমার জন্য শোক প্রস্তাব গ্রহণে সংসদ সচিবালয়কে একটি চিঠি দিয়েছিলেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে এবার শোক প্রস্তাবে তাঁর নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

এদিকে সংসদে উত্থাপিত প্রস্তাবে সাবেক সংসদ সদস্য ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য এম আবদুর রহীম, ডা. এম এ মান্নান, আলী রেজা রাজু, সাবেক প্রতিমন্ত্রী কোরবান আলী, সাবেক এমপি ফজলুর রহমান পটল, আবদুর রাজ্জাক খান, মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা, সংসদ সচিবালয়ের গাড়ি চালক বিপ্লব হোসেনের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাবটি উত্থাপন করা হয়।


মন্তব্য