kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাজাকার ফারুককে সেফহোমে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



রাজাকার ফারুককে সেফহোমে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি

শেরপুরের নকলা উপজেলার রাজাকার এস এম আমিনুজ্জামান ফারুককে তদন্ত সংস্থার সেফহোমে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। তদন্তের অংশ হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চেয়ে গতকাল রবিবার আবেদন করা হলে বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন।

গতকাল ট্রাইব্যুনালে আবেদনের শুনানি করেন প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন।

গ্রেপ্তারি পরোয়ানার পর গত ২২ আগস্ট এস এম আমিনুজ্জামান ফারুককে নকলা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হলে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। এস এম আমিনুজ্জামান ফারুক নকলা হাজী জাল মামুদ কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক (সাময়িকভাবে বরখাস্ত)। তাঁর বিরুদ্ধে একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত করছে ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।

জানা গেছে, নকলার বাজারদি এলাকার সৈয়দ আলম মঞ্জু তাঁর চাচা সৈয়দ শাহজাহান আলীকে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে হত্যার অভিযোগে ২০০৯ সালের ১৩ এপ্রিল নকলা থানায় প্রাথমিক অভিযোগ করেন। অভিযোগটি পরে ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরিত হয়।

১৯৭১ সালের ২৭ আগস্ট সন্ধ্যায় নামাজ আদায়ের পর সৈয়দ শাহজাহান আলীকে নকলার ধানহাটি বাজার মসজিদ থেকে এস এম আমিনুজ্জামান ফারুক ও তাঁর পাঁচ সহযোগী মিলে আটক করেন। শাহজাহান আলীকে নেওয়া হয় নকলা পাইলট হাই স্কুলে পাকিস্তানিদের ক্যাম্পে। সেখানে তাঁর শরীরের কাপড়, মাথার পাগড়ি খুলে মুখের ভেতর গুঁজে দিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে রাজাকাররা।


মন্তব্য