kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফখরুল বললেন

মধ্যবর্তী নয় বিএনপি নতুন নির্বাচন চায়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মধ্যবর্তী নয়, বিএনপি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচন চায়। এ কথা বলেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, ‘জাতীয় সংসদকে সত্যিকার অর্থে জনপ্রতিনিধিত্বশীল করার জন্য আমরা অবিলম্বে নির্বাচন চেয়েছি। কিন্তু আমরা কখনো বলিনি, মধ্যবর্তী নির্বাচন চাই। এই নির্বাচনই (২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচন) তো আমরা মানি না। সুতরাং নতুন নির্বাচন দিতে হবে। সে নির্বাচন অবশ্যই নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে দিতে হবে। আর তা পরিচালনা করবে সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন। ’

গতকাল শনিবার বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের শরিক জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে জোট বাঁধো’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনে যোগ দেওয়ার পর একটি অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের নির্বাচন বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপি মহাসচিব তাঁর দলের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

নতুন ইসি গঠনের জন্য ‘সার্চ কমিটি’ প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, ‘আপনাদের (সরকারের) নির্বাচিত সার্চ কমিটি নয়, জনগণের নির্বাচিত সার্চ কমিটি দ্বারা সেই কমিশন গঠন করতে হবে। জনগণের মতামতের ভিত্তিতে সেটা করতে হবে। ’

চলমান দশম সংসদকে ‘জনপ্রতিনিধিত্বহীন সংসদ’ অভিহিত করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, সেখানে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র, তিস্তা নদীর পানিবণ্টন, সীমান্তে হত্যা প্রভৃতি বিষয়ে আলোচনা হয় না।

ফখরুল বলেন, ‘মধ্যবর্তী নির্বাচনের কথা বলেছেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সাহেব। আর প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কিসের মধ্যবর্তী নির্বাচন!’ তিনি বলেন, ‘আমরা মধ্যবর্তী নির্বাচনের কথা বলি নাই। ’

সভাপতির বক্তব্যে জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেন, ‘গণতন্ত্র ছাড়া বাংলাদেশ বাঁচবে না। আমরা নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই, ভারতের সুজাতা সিং (সাবেক পররাষ্ট্রসচিব) যেভাবে ঢাকায় এসে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করে গেছেন, সেভাবে নির্বাচন আমরা চাই না। ’


মন্তব্য