kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টিমওয়ার্ক নিরুৎসাহিত করে যে কাজগুলো

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



টিমওয়ার্ক নিরুৎসাহিত করে যে কাজগুলো

কর্মক্ষেত্রে অত্যন্ত ভালো ফলাফল পাওয়া যায় টিমওয়ার্কে। আর এ টিমওয়ার্ক নির্ভর করে বস কর্মীদের নানা কাজে উৎসাহ দিচ্ছেন নাকি নিরুৎসাহিত করছেন তার ওপর।

এ ক্ষেত্রে কিছু কাজ কর্মীদের নিরুৎসাহিত করে এবং টিমওয়ার্কের গতি নষ্ট করে। এ লেখায় দেওয়া হলো টিমওয়ার্ক নিরুৎসাহিত করে এ ধরনের কয়েকটি কাজ। কর্মীদের উৎপাদনশীলতা বাড়াতে ও সৃজনশীল কাজে উৎসাহিত করতে হলে এ বিষয়গুলোকে এড়িয়ে চলা উচিত।

১. টিমের কোনো সদস্যের দারুণ কোনো কাজ করার পরও যখন তাঁর সে কাজের স্বীকৃতি দেওয়া কিংবা সে জন্য ধন্যবাদ দেওয়া হয় না।

২. দারুণ আইডিয়া নিয়ে আসার পরেও কোনো কর্মীর সে আইডিয়াকে গুরুত্ব না দেওয়া। এর বদলে তাঁর কাজের মধ্যে এটি পড়ে না বলে জানিয়ে দেওয়া।

৩. কোনো একটি কঠিন লক্ষ্য পূরণ করার সঙ্গে সঙ্গে নতুন লক্ষ্য ঠিক করে দেওয়া। এতে কর্মীরা বুঝতে পারে, লক্ষ্য ক্রমাগত বড় হতে থাকবে।

৪. একটি টিমের শুধু একজনকে কিংবা একাংশকে কাজের জন্য উৎসাহিত করা এবং অন্যদের কাজকে উপেক্ষা করা।

৫. টিমের সদস্যরা যে আইডিয়াই আনুক না কেন, তার সবই বাতিল করে দেওয়া।

৬. টিমের সদস্যদের ভুলকে স্বভাবতই সবারই ভুল হিসেবে দেখতে হবে। এ ক্ষেত্রে বিষয়টি যদি কারো ঘাড়ে চাপিয়ে দেওয়া হয় তাহলে তা অন্যদের নিরুৎসাহিত করবে।

৭. টিমের সদস্যদের কর্মক্ষেত্রের বাইরেও একটি জীবন রয়েছে। এ বিষয়টির মূল্য না দিলে তা তাদের নিরুৎসাহিত করবে।

৮. টিমের সদস্যরা প্রত্যেকেই মানুষ, মেশিন নয়। মেশিন মনে করলে স্বভাবতই তাঁদের সৃজনশীলতা ও সৃষ্টিশীলতা থেকে বঞ্চিত হতে হবে।

৯. অযাচিত বিভিন্ন নিয়মের মাধ্যমে অনেক প্রতিষ্ঠানই কর্মীদের আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে রাখতে চায়। আর এ নিয়মগুলো প্রায়ই তাদের কাজে নিরুৎসাহিত করে।

১০. টিমের সদস্যদের মাঝে বন্ধন তৈরি করতে দৃঢ় অঙ্গীকার ও তা রক্ষা করা প্রয়োজন। এ অঙ্গীকার যদি ভঙ্গ করা হয় তাহলে তা বিশ্বাস নষ্ট করে এবং টিমওয়ার্কও গতি হারায়।

ফোর্বস অবলম্বনে ওমর শরীফ পল্লব


মন্তব্য