kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বোয়িং দিয়ে যাত্রী আকর্ষণ

প্রতিযোগিতায় দেশের বিমান সংস্থাগুলো

আসিফ সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আন্তর্জাতিক রুটে যাত্রী আকর্ষণ করতে বড় পরিসরের বোয়িং বিমান ব্যবহারের দিকে ঝুঁকছে দেশের বিমান সংস্থাগুলো। একে অপরের চেয়ে বাড়তি সুবিধা দিয়ে নিজেদের সংস্থায় যাত্রী টানার প্রতিযোগিতায় নেমেছে সংস্থাগুলো।

এই প্রতিযোগিতায় রাষ্ট্রায়ত্ত বাংলাদেশ বিমান যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে বেসরকারি দেশীয় বিমান সংস্থাগুলো।

রিজেন্ট এয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাশরুফ হাবিব কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাংলাদেশ বিমান বোয়িংয়ে যাত্রী পরিবহনে ভালো সাড়া দেখে আমরাও বোয়িং কেনার দিকে ঝুঁকেছি। দুটি বোয়িং দিয়ে পারফরম্যান্স ভালো হওয়ায় আরো একটি যুক্ত করেছি আমরা। আগামী দিনেও আরো আধুনিক মডেলের বোয়িং বিমান যুক্ত করা হবে। ’

মাশরুফ হাবিব জানান, বোয়িং কেনার ক্ষেত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক্সিম ব্যাংক অর্থায়ন করে, আর এয়ারবাস কেনার ক্ষেত্রে ইউরোপীয় ইউনিয়ন অর্থায়ন করে থাকে। ফলে ঋণ পেতে দুটি সংস্থার সুযোগ সুবিধা প্রায় একই রকম।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বহরে ডিসি ১০ যুগের অবসান ঘটিয়ে বাংলাদেশ বিমান ২০০৮ সালে বোয়িং বিমান যুগে প্রবেশের উদ্যোগ নেয়। বোয়িং বিমান প্রস্তুতকারক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বোয়িং কমার্শিয়াল এয়ারপ্লেনসের সঙ্গে এ-সংক্রান্ত চুক্তি হয়। এরই অংশ হিসেবে ২০১১ সালে বিমান বহরে প্রথম যুক্ত হয় দুটি ৭৭৭-৩০০ ইআর সিরিজের বোয়িং বিমান। বাংলায় নাম রাখা হয় ‘পালকি’ ও ‘অরুণ আলো’। এরপর ২০১৪ সালে যুক্ত হয় আরো দুটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ সিরিজের বিমান। নাম রাখা হয় ‘আকাশ প্রদীপ’ ও ‘রাঙা প্রভাত’। এসব বিমানে বিজনেস শ্রেণিতে ৩৫টি এবং ইকোনমি শ্রেণি ৩৮৪টি মিলিয়ে মোট আসন সংখ্যা ৪১৯। সর্বশেষ ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে যুক্ত হয় আরো দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ সিরিজের বিমান। বাকি চারটি বিমানের মধ্যে ২০১৯ সালে দুটি এবং ২০২০ সালে দুটি ৭৮৭ ড্রিম লাইনার বিমান যুক্ত হবে বিমানের বহরে।  

বর্তমানে বাংলাদেশ বিমানের বহরে ছয়টি নতুন বোয়িং বিমান রয়েছে। এগুলো দিয়ে ১৮টি আন্তর্জাতিক রুটে যাত্রী পরিবহন করছে সরকারি এই সংস্থাটি।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ বিমানের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘বিশ্বে যাত্রী পরিবহনে এখন বোয়িং ও এয়ারবাসের মধ্যেই প্রতিযোগিতা চলছে। আমরা এয়ারবাসের চেয়ে বোয়িংকেই প্রাধান্য দিচ্ছি। তবে আমাদের বহরে ২২০ আসনের দুটি এয়ারবাসও রয়েছে। ’


মন্তব্য