kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সৈয়দ আশরাফ বললেন

নির্বাচন কমিশনসহ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিতর্কিত করবেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নির্বাচন কমিশনসহ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিতর্কিত না করতে বিএনপিসহ সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ‘নির্বাচন কমিশন, সুপ্রিম কোর্ট, হাইকোর্টসহ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা ঠিক নয়।

এগুলো সভ্যতার স্তম্ভ। আসুন, আমরা এই প্রতিষ্ঠানগুলোকে সম্মান দেখাই। ’

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগদান শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশে ফেরা উপলক্ষে ২৬ সেপ্টেম্বর গণঅভ্যর্থনা কর্মসূচি সফল করতে এক যৌথ সভা শেষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা ও আশপাশের জেলা-উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। তিনি সবার সঙ্গে আলোচনা করে নিয়োগ দেন। আমরা যদি সব কিছুকেই বিতর্কিত করি, তাহলে আমরা যাব কোথায়? মাথা ঠেকানোর জায়গা কোথায়? এভাবে সব কিছুকে বিতর্কিত করা হলে সভ্যতা থাকবে না। আইন থাকবে না। তাহলে কি গণতন্ত্র থাকবে?’

জনপ্রশাসনমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ থেকে দুটি পুরস্কার পেয়েছেন। একটি নারীদের অধিকার রক্ষায়, অন্যটি পরিবর্তনের জন্য। প্রধানমন্ত্রী সব সময় নারী-শিশুদের অধিকারের বিষয়ে সোচ্চার থাকেন। আগে বাংলাদেশের মতো দেশ?গুলোর কোনো মুখপাত্র ছিল না। শেখ হাসিনা এখন এমন দেশগুলোর প্রতিনিধি হিসেবে কথা বলেন। তিনি যা সত্য, তাই বলেন। তিনি ভয়হীন। প্রধানমন্ত্রী আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে কোনো দাবি তুলে ধরলে তা বাতিল হয়ে যায় না। কেননা তিনি যুক্তি দিয়ে দাবি তোলেন। ফলে অন্য দেশগুলো তাতে সমর্থন দেয়। ’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন আর ১০ বছর আগের অবস্থানে নেই। ডিজিটাল বাংলাদেশের ওপর চলে গেছে। শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মানুষের জন্য, আমাদের জন্য নিজের আরাম-আয়েশ, ঘুম বাদ দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা আর ১০ বছর সেবা দিতে পারলে বাংলাদেশ শুধু মধ্যম আয়ের দেশ নয়, উন্নত দেশে পরিণত হবে। ’


মন্তব্য