kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঢাকা মেডিক্যাল থেকে আবার শিশু চুরি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ঢাকা মেডিক্যাল থেকে আবার শিশু চুরি

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২০০ নম্বর ওয়ার্ডের নিউরোসার্জারি বিভাগের এই বারান্দা থেকে চুরি হয় তিন মাস বয়সী শিশু খাদিজা। এখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন খাদিজার বাবা মস্তিষ্কে টিউমারে আক্রান্ত বাহাদুর ঢালী। চুরি যাওয়ার পর মায়ের আহাজারি। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল থেকে ফের শিশু চুরির ঘটনা ঘটেছে। তিন মাস বয়সী ওই মেয়ে শিশুটির নাম খাদিজা।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে।

শিশুটির বাবা বাহাদুর ঢালী সাংবাদিকদের জানান, মস্তিষ্কে টিউমার নিয়ে আড়াই মাস ধরে হাসপাতালের ২০০ নম্বর ওয়ার্ডের নিউরোসার্জারি বিভাগের বারান্দায় চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। তাঁর সঙ্গে স্ত্রী নাসিমা বেগম, মেয়ে স্বর্ণা (১০) ও খাদিজা থাকে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাঁর ছোট মেয়েটি চুরি হয়ে গেছে। তাঁদের বাড়ি মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ীতে।

গতকাল বিকেলে শাহবাগ থানার ওসি আবু বক্কর সিদ্দিকী ঢামেক হাসপাতালে গিয়ে প্রাথমিক তদন্তের পর কালের কণ্ঠকে বলেন, গতকাল দুপুরে বাহাদুর ঢালীর বড় মেয়ে স্বর্ণাকে জামা কিনে দেওয়ার কথা বলে হাসপাতালের বাইরে নিয়ে যায় এক নারী। স্বর্ণার কোলে তখন খাদিজাও ছিল। একপর্যায়ে খাদিজাকে নিজের কোলে নিয়ে ওই নারী জামা পছন্দ করার জন্য মাকে ডেকে আনতে স্বর্ণাকে হাসপাতালের ভেতরে পাঠায়। এরপর শিশুটির মা এসে ওই নারী ও তাঁর সন্তানের কোনো খোঁজ পাননি।

ঢামেক কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ওসি আবু বক্কর জানান, হাসপাতালের গাইনি বিভাগের আয়া, বুয়াদের সন্দেহ করা হচ্ছে। ঢামেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় শিশুটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

শিশু সন্তান চুরি হওয়ায় পাগলপ্রায় মা নাসিমা বেগম। তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও পুলিশের কাছে সন্তানকে ফিরে পাওয়ার জন্য আকুতি জানাচ্ছেন বারবার।

ঢামেক হাসপাতালের ফাঁড়ি পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, তিন দিন আগে এক নারী শিশুটির মায়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলে। তাকে এখন আর হাসপাতালে দেখা যাচ্ছে না। এতে ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারীই শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে যেতে পারে।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, স্বর্ণার বর্ণনা অনুযায়ী ওই নারীর খোঁজ চলছে। হাসপাতালের ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, দুই বছর আগে ঢামেক হাসপাতাল থেকে এক নবজাতক চুরি হয়েছিল। শিশুটিকে চার দিনের মাথায় উদ্ধার করেছিল র‍্যাব। এর আগে আরো অনেক শিশু ওই হাসপাতাল থেকে চুরি হয়। একটি সংঘবদ্ধ চক্র সেখানে ওত পেতে থাকে। এ চক্রের বেশির ভাগ সদস্য নারী বলে জানা গেছে। হাসপাতালের আয়া, বুয়াসহ কর্মচারীদের কেউ কেউ শিশু চুরির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তাদের অনেককে আটকও করেছে পুলিশ।   


মন্তব্য