kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিউ ইয়র্কে নাগরিক সংবর্ধনা

আগুন সন্ত্রাসের আসামি খালেদা জিয়ারও বিচার হবে : প্রধানমন্ত্রী

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আগুন সন্ত্রাসের আসামি খালেদা জিয়ারও বিচার হবে : প্রধানমন্ত্রী

নারীর ক্ষমতায়নে অসামান্য অবদান রাখার জন্য বুধবার নিউ ইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘এজেন্ট অব চেঞ্জ অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করে ইউএন-ওমেন এবং গ্লোবাল পার্টনারশিপ ফোরাম। ছবি : পিআইডি

দেশে আগুন সন্ত্রাসীদের বিচারের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আন্দোলনের নামে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে হত্যাকারী এবং তাদের হুকুমের আসামিদের বিচারের মুখোমুখি করা হবে। হুকুমের আসামি হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াও রেহাই পাবেন না।

নিউ ইয়র্ক সময় বুধবার রাতে স্থানীয় গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দেওয়া নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দেশে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের হত্যার বিচার চলছে, কাজেই আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার স্বার্থে সব হত্যাকাণ্ডের বিচার আমরা করব। আগুন সন্ত্রাসীদেরও বিচার বাংলার মাটিতে হবে। ’ গত জাতীয় নির্বাচনে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপি জোট অংশ না নেওয়ার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘কোনো রাজনীতিবিদ ভুল করলে তাঁর ভুলের খেসারত কে দেবে? ট্রেন যদি চলে যায় তাহলে পরের ট্রেনের জন্য তো অপেক্ষা করতেই হবে। ’

তিনি বলেন, এখন তারা (বিএনপি) আবার রাজনীতিতে স্পেস চায়। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে টানা ৯২ দিনের আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা, মানুষের জানমালের ক্ষতির জন্য যদি দেশীয় আইনে কারো বিরুদ্ধে মামলা হয়, তো হতেই পারে। তাকে রাজনৈতিক মামলা বলা যায় কি—প্রশ্ন তোলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আসলে স্পেস নয়, কৃত অপরাধের জন্য তাদের জেলে যাওয়া উচিত। তখন অ্যারেস্ট করা হয়নি সেটাই তাঁর (খালেদা জিয়ার) ভাগ্য। তবে একদিন এই অপরাধে খালেদা জিয়ার বিচারও বাংলার মাটিতে হবে।

প্রবাসীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যে যেই স্থানেই থাকেন সেখানকার জনপ্রতিনিধিদের কাছে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের বাস্তব চিত্রটা তুলে ধরবেন। এটা করার জন্য আমি আপনাদের সবার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। তাহলে আর কেউ আমাদের দেশ সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়ে দেশের ভাবমূর্তিকে সংকটে ফেলতে পারবে না। ’ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন। অন্যান্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য