kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বান্দরবানে ডুবে যাওয়া শিক্ষকের মরদেহ উদ্ধার

বগুড়ার আযিযুল হক কলেজে শোক

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বান্দরবানে ডুবে যাওয়া শিক্ষকের মরদেহ উদ্ধার

বান্দরবানে গোসল করতে নেমে শঙ্খ নদে ডুবে যাওয়া বগুড়া সরকারি আযিযুল হক কলেজের অধ্যাপক তৌফিক সিদ্দিকীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা তাঁর লাশ খুঁজে পান।

 

আজ সোমবার সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে রাজধানী ঢাকায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (শিক্ষাভবন) চত্বরে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ অংশ নেবেন। গতকাল রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক তথ্যবিবরণীতে এ কথা জানানো হয়। গতকাল পৃথক শোকবার্তায় শিক্ষক তৌফিক সিদ্দিকীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ—

অধ্যাপক তৌফিক সিদ্দিকী (৪৮) আযিযুল হক কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক। তিনি স্ত্রীসহ ১৭ সদস্যের একটি পর্যটকদল নিয়ে শনিবার সকালে বান্দরবানের রুমা বাজার হয়ে রিজুক ঝরনা দেখতে যান। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে শঙ্খ নদের রিজুক ঝরনা মুখে তিনি গোসল করতে নেমে ডুবে যান।

রুমা থানার ওসি শরিফুল ইসলাম জানান, উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্যে নিহতের মৃতদেহ ইঞ্জিন নৌকাযোগে বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে বিকেল পৌনে ৩টার দিকে লাশ বান্দরবানে পৌঁছার পর পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়। অধ্যাপক তৌফিক সিদ্দিকী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার সৈয়দাবাদ গ্রামের প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা এ বি সিদ্দিকীর ছেলে।

তৌফিক স্যারের জন্য কাঁদছে ক্যাম্পাস : বগুড়া আযিযুল হক কলেজে ছাত্র-শিক্ষক সবার প্রিয় শিক্ষক তৌফিক সিদ্দিকী। সদালাপি, সাদাসিদে জীবনযাপনকারী এই মানুষটির নির্মম মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না কেউই। তাঁর স্মরণে গতকাল কলেজে নীরবতা কর্মসূচি পালন করা হয়। আগামীকাল মঙ্গলবার কলেজ ক্যাম্পাসে শোকসভা অনুষ্ঠিত হবে। সহকর্মীরা জানান, তৌফিক ছিলেন অতি সাধারণ একজন মানুষ। ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে মিশতেন বাবার মতো, বন্ধুর মতো।


মন্তব্য