kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন

হাইকমিশনারের নির্মাণকাজ পরিদর্শন

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শান্তিনিকেতনে চলছে ‘বাংলাদেশ ভবন’-এর নির্মাণকাজ। গতকাল শনিবার বিশ্বভারতীর এ ভবন নির্মাণকাজ পরিদর্শন করেছেন ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী।

আগামী বছরের শেষ নাগাদ এর নির্মাণকাজ সম্পন্ন হবে বলে হাইকমিশনার সাংবাদিকদের জানান।

বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রীদের সুবিধার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩০ কোটি রুপি খরচ করে ‘বাংলাদেশ ভবন’ তৈরির উদ্যোগ নেন। পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার বোলপুর মহকুমায় শান্তিনিকেতনে এ ভবন নির্মাণের ব্যয় বাংলাদেশ সরকারের হলেও জমি দান করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তীরণ কিছু সমস্যার কারণে প্রায় দেড় বছর পর ভবনের কাজ শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী শনিবার সকালে কলকাতার বাংলাদেশ উপদূতাবাসের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে শান্তিনিকেতনে পৌঁছেন। এ সময় তাঁকে বিশ্বভারতীর উপাচার্য ড. স্বপন দত্ত স্বাগত জানান এবং নির্মীয়মাণ বাংলাদেশ ভবন দেখাতে নিয়ে যান। নির্মাণকাজ ঘুরে দেখে হাইকমিশনার সন্তোষ প্রকাশ করেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কাজ দেখে যা মনে হচ্ছে আগামী বছরের শেষ দিকে এটা সম্পন্ন হবে। সেটা হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখানে পৌঁছে ভবনের উদ্বোধন করবেন। এই ভবনের অর্থ বরাদ্দ থেকে নকশা সবটাই প্রধানমন্ত্রী উদ্যোগী হয়ে করেছেন।

বিশ্বভারতীর উপাচার্য স্বপন দত্ত বলেন, ক্যাম্পাসে বাংলাদেশ ভবন শুধু একটি বিল্ডিং নয়, বরং এটা দুই দেশের মধ্যে বন্ধনের সেতু হিসেবে থাকবে। বাংলাদেশ ভবন হলে বিশ্বভারতীতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশের ছাত্রছাত্রী কিংবা গবেষকরা অনেক উপকৃত হবেন।


মন্তব্য