kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


তেরখাদায় পল্লী বিদ্যুতের তার টানতে গিয়ে বৃক্ষ নিধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



খুলনার তেরখাদা উপজেলার নলিয়ার চরে পল্লী বিদ্যুতের তার টানতে গিয়ে যথেচ্ছভাবে গ্রামবাসীর গাছ কাটা হচ্ছে। এমনকি বাসিন্দাদের বাড়ির ওপর দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে তার টানা হয়েছে।

এ নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পায়নি তারা। ঈদের আগের দিন ১২ সেপ্টেম্বর পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের ভাড়া করা কিছু লোক এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তেরখাদার সাচিয়াদহ ইউনিয়নের নলিয়ার চর এলাকায় বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়া হচ্ছে। এর আগে তেরখাদা সদর থেকে নলিয়ার চরের কাছাকাছি বিদ্যুতের তার টানা ছিল। এখন সেখান থেকে চার কিলোমিটারের নতুন সংযোগ দেওয়া হচ্ছে। এ জন্য এলাকার বাসিন্দাদের গাছ কাটা হচ্ছে। নলিয়ার চরের বাসিন্দা জামান বিশ্বাস, নির্মল বিশ্বাস, অনিল বিশ্বাসসহ অনেকের বাড়ির গাছ যথেচ্ছভাবে কাটা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে সুপারি, নারিকেল, কাঁঠাল ও মেহগনি গাছ রয়েছে। অনিল বিশ্বাসের বাড়ি থেকে ২০টি সুপারি গাছ, ৯টি নারিকেল গাছ ও দুটি কাঁঠাল গাছ কাটা হয়েছে। বেশির ভাগ গাছই গোড়া এবং ভূমি থেকে পাঁচ-ছয় হাত ওপর থেকে কাটা হয়েছে। কাটা গাছগুলো তারা নিয়েও গেছে। অনেকের বাড়ির সীমানার মধ্য দিয়ে তার টেনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিরা একেবারে নির্বাক হয়ে আছে। তারা এ ব্যাপারে কোনো কথা বলতে চায় না। কারো বিরুদ্ধে নালিশও জানাতে চায় না।

এ ব্যাপারে খুলনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সেনেরবাজার অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সঞ্জয় রায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বিদ্যুতের তার টানানোর সুবিধার্থে এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এলাকাবাসী নিজেরাই গাছ কেটেছে। ’

তবে এলাকাবাসী বলছে, এখানকার রাজনৈতিক প্রভাবশালী এক ব্যক্তি দায়িত্ব নিয়েছেন বিদ্যুতের তার টেনে নিয়ে যাওয়ার জন্য।


মন্তব্য