kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সুন্দরবন থেকে ফের ২০ জেলে অপহরণ

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সুিন্দরবন থেকে দস্যুরা আবারও ২০ জন জেলেকে অপহরণ করেছে। অপহরণকারী ওই দস্যুরা ‘জাহাঙ্গীর বাহিনী’র সদস্য বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার গভীর রাতে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বাগেরহাট জেলার মংলা উপজেলাধীন ধানসিদ্ধির চর এলাকায় মাছ ধরতে যাওয়া জেলেবহরে দস্যুরা হামলা চালায়। দস্যুরা ২০টি ট্রলার থেকে ১০ লক্ষাধিক টাকার মাছ ও জাল লুট করে নেয়। এ সময় বাধা দিতে গেলে দস্যুদের মারধরে পাঁচ জেলে আহত হয়। যাওয়ার সময় দস্যুরা মুক্তিপণ দাবি করে ২০ জন জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহৃত জেলেদের উদ্ধারে কোস্ট গার্ড মংলা পশ্চিম জোনের সদস্যরা বুধবার সকাল থেকে অভিযান শুরু করেছেন। তবে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত কোনো জেলেকে উদ্ধার বা দস্যু আটকের খবর পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন জেলে কালের কণ্ঠকে জানায়, সুন্দরবনের ধানসিদ্ধির চর এলাকায় ২০টি ট্রলারে করে দুই শতাধিক জেলে মাছ ধরছিল। মঙ্গলবার গভীর রাতে ট্রলারযোগে আসা ১০-১২ জনের সশস্ত্র একদল দস্যু জেলেদের ট্রলারে হামলা চালায়। দস্যুরা জেলেদের অস্ত্র দেখিয়ে ওই ট্রলারগুলো থেকে ১০ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের মাছ ও জাল লুট করে। এ সময় বাধা দিতে গেলে দস্যুরা পাঁচ জেলেকে পিটিয়ে আহত করে। যাওয়ার সময় দস্যুরা জনপ্রতি এক লাখ টাকা করে মুক্তিপণের দাবিতে ২০ জন জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

কোস্ট গার্ড মংলা পশ্চিম জোনের অপারেশন বিভাগের স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট ফরিদুজ্জামান খান জানান, ২০ জেলে অপহরণের খবর পাওয়ার পর কোস্ট গার্ড সদস্যরা বুধবার সকাল থেকে সুন্দরবনে অভিযান শুরু করেছেন। সুন্দরবনকেন্দ্রিক কোস্ট গার্ডের ১০টি কন্টিনজেন্ট সদস্যরা এবং মংলা কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের একটি বিশেষ দল অভিযানে অংশ নিয়েছে।


মন্তব্য