kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিভাগীয় শহরে ঈদুল আজহা উদযাপিত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বিভাগীয় শহরগুলোতে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে। ঈদের জামাতে নামাজ আদায়ের পর দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ কোলাকুলি ও করমর্দনের মধ্য দিয়ে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করে।

এ ছাড়া নগরগুলোর বিভিন্ন স্থাপনাসহ সরকারি-বেসরকারি ভবনে আলোকসজ্জা করা হয়। বিনোদনের স্থানগুলো ছিল মুখরিত। বিস্তারিত আমাদের আঞ্চলিক অফিস থেকে পাঠানো খবরে—

চট্টগ্রামে ঈদের দিন সকালে নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়েই শুরু হয় ঈদ উৎসব। এবারও ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় নগরের জমিয়াতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ মাঠে। সকাল পৌনে ৮টায় প্রথম ঈদ জামাতে ইমামতি করেন জ্যেষ্ঠ পেশ ইমাম মাওলানা নূর মোহাম্মদ সিদ্দিকী।

ঈদ জামাতে প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন, জাতীয় পার্টির নেতা মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, সোলায়মান আলম শেঠ প্রমুখ অংশ নেন। এ ছাড়া ব্যবসায়ী-শিল্পপতিসহ নগরের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা হাজার হাজার মুসল্লি নগরের প্রধান এই ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করে।

একই স্থানে সকাল পৌনে ৯টায় দ্বিতীয় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন। এই দুটিসহ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে এবার ১৬৬টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের প্রশিক্ষণ মাঠে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনায় ঈদের প্রধান জামাত নগরীর সার্কিট হাউস ময়দানের পরিবর্তে টাউন জামে মসজিদে সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন খুলনা টাউন জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ সালেহ। একই স্থানে আরো দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া নিউ মার্কেটসংলগ্ন বায়তুন-নুর জামে মসজিদ, ডাকবাংলো জামে মসজিদ, ময়লাপোতা বায়তুল আমান জামে মসজিদ, নগরীর খুলনা আলিয়া মাদ্রাসা, পিটিআই জামে মসজিদ, কেডিএ নিরালা জামে মসজিদ, সিদ্দিকিয়া মাদ্রাসা ময়দান, তালিমুল মিলাত মাদ্রাসা, দারুল উলুম মাদ্রাসা ময়দান, আন্তজেলা বাস টার্মিনাল মসজিদ, শিপইয়ার্ড, লবণচরা, চানমারী, রূপসা, টুটপাড়া, মিয়াপাড়া, শেখপাড়া, বসুপাড়া, করবস্থান জামে মসজিদ, জেলা পুলিশ লাইন ময়দান, জোড়াগেট সিঅ্যান্ডবি কলোনি মসজিদ, বয়রা মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন মাঠ, খালিশপুর ক্রিসেন্ট জুট মিলস মাঠ, দৌলতপুর রেলওয়ে ময়দান, বিএল কলেজ মাঠ, দেয়ানা ঈদগাহ ময়দান এবং ফুলতলাসহ নগরীর বিভিন্ন মসজিদ ও ময়দানে ঈদের জামাত অনুুষ্ঠিত হয়।

খুলনা সিটি করপোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে পৃথকভাবে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

রংপুরে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের প্রধান জামায়াত অনুষ্ঠিত হয় কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে। এতে সাবেক রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এ কে এম নুর উন নবী, সিটি মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু, বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষ অংশ নেয়।

এ ছাড়া রংপুর পুলিশ লাইন মাঠে জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে। কেরামতিয়া জামে মসজিদ মাঠ ও বুড়িরহাট ঈদগাহে সকাল ৯টায়, মুন্সীপাড়া ঈদগাহ ও মুলাটোল আলিয়া মাদ্রাসায় সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।


মন্তব্য