kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জমে উঠছে খুলনার পশুর হাট

খুলনা অফিস   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জমে উঠতে শুরু করেছে খুলনার পশুর হাটগুলো। মহানগরীর জোড়াগেটসহ স্থায়ী-অস্থায়ী মিলিয়ে ৩৬টি পশুর হাট বসেছে।

গত কয়েক দিন হাটে বেশি ক্রেতা না থাকলেও গতকাল শনিবার ক্রেতাদের ভিড় দেখা গেছে। ক্রেতারা বলছে, অন্য বছরের তুলনায় এবার কোরবানির পশুর দাম চড়া। তবে বিক্রেতারা বলছেন, খাদ্যসহ গবাদি পশু পালনের উপকরণের দাম বাড়ায় দাম একটু বেশি।

খুলনা সিটি করপোরেশন পরিচালিত নগরীর জোড়াগেট হাটে গতকাল সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বাজারে দূর-দূরান্ত থেকে ট্রাক, ইঞ্জিনচালিত ভ্যান, ট্রলারযোগে গরু নামছে। বিশেষ করে হাটে নড়াইল থেকে অনেক গরু এসেছে। এ ছাড়া জেলার তেরখাদা, দিঘলিয়া, যশোরের মণিরামপুর, কেশবপুর, অভয়নগর, সাতক্ষীরার তালা, পাটকেলঘাটা থেকেও গরু আসছে। এখন পর্যন্ত বাজারে সবচেয়ে বড় গরুটির দাম হাঁকানো হয়েছে আট লাখ টাকা। গরুটি ৯ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৫ ফুট উচ্চতার। গরুটির বিক্রেতা নড়াইলের কালিয়া উপজেলার খোরকুট গ্রামের হাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, “তিন-চার বছর ধরে গরুটি বড় করেছি। ওর নাম দিয়েছি ‘কালো পাহাড়’। গরুটির দাম পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত উঠেছে। তবে  সাড়ে ছয় লাখ টাকায় বিক্রি করতে চাই। ” হাটে কাজী শান্ত নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘এ বছর গরুর দাম গেল বছরের তুলনায় অনেক বেশি। আগে যে গরু ৪০-৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে, এ বছর তা ৬০-৬৫ হাজার টাকা। ’ একই অভিমত ব্যক্ত করেন নগরীর বাসিন্দা লোকমান হোসেন। নড়াইলের গরু ব্যাপারী মো. ঈসা শেখ, আলমগীর হোসেনসহ অন্যরা বলেন, এ বছর গরুর দাম একটু বেশিই পড়বে। গরু পালনের সব কিছুর দাম বাড়ায় কৃষক ও খামারিদের খরচ কয়েক গুণ বেড়েছে। তাই দাম বাড়াতে হচ্ছে।

ডুমুরিয়া থেকে আসা  মিলন ইসলামসহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, ‘গরু খুলনায় আনতে অনেক স্থানে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। আমরা বিষয়টি জোড়াগেট হাট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। ’ কেসিসির বাজার সুপার ও পশুর হাট কমিটির সদস্য গাজী সালাহউদ্দিন বলেন, ‘আমরা জোড়াগেট পশুর হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ব্যবস্থা নিয়েছি। একই সঙ্গে কোনো অভিযোগ এলে তা সঙ্গে সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানো হচ্ছে। ’


মন্তব্য