kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

সাবেক অর্থমন্ত্রী ও বিএনপি নেতা এম সাইফুর রহমানের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ সোমবার। ২০০৯ সালের এই দিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি মারা যান।

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর পরিবারের সদস্যরা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনায় আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব, শুভাকাঙ্ক্ষী, শুভানুধ্যায়ীসহ সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইমলাম আলমগীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। এ ছাড়া বিএনপির পক্ষ থেকে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বাদ আসর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

সাইফুর রহমান দীর্ঘ ১২ বছর বাংলাদেশের অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। মোট ১২টি জাতীয় বাজেট প্রণয়ন হয়েছে তাঁর হাতে। জিয়াউর রহমান সরকারের শেষ সময়ে তিনি প্রথমবারের মতো ১৯৮০-৮১ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট ঘোষণা করেন। পরে বিএনপি সরকারের ১৯৯১-১৯৯৫ মেয়াদ ও ২০০২-২০০৬ মেয়াদে মোট ১১টি জাতীয় বাজেট ঘোষণা করেন তিনি।

ছাত্রীদের জন্য বৃত্তি ব্যবস্থার প্রচলন করেন সাইফুর রহমান। মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ব্যবস্থার প্রচলনও হয় তাঁর হাত ধরে। এরশাদ সরকারের আমলে রাজস্ব ব্যবস্থাপনায় যে সংস্কারের সূচনা হয়েছিল বিএনপির আমলে এর চূড়ান্ত রূপ দাঁড় করান সাইফুর রহমান।

১৯৩২ সালের ৬ অক্টোবর সিলেটে জন্ম নেওয়া এই অর্থনীতিবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিকম পাস করে লন্ডনে গিয়ে চার্টার্ড অ্যাকাউনট্যান্ট হন। ১৯৭৭ সালে জিয়াউর রহমান জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক দল গঠনের কথা বললে সাইফুর রহমান তাতে সমর্থন দেন। ১৯৭৮ সালে বিএনপি প্রতিষ্ঠার পর ১৯৭৯ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণকারী এম সাইফুর রহমান ২০০৫ সালে একুশে পদক লাভ করেন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের আগে তিনি এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ও বিশ্বব্যাংকেও কাজ করেন।


মন্তব্য