kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টাঙ্গাইলে দর্জি খুন

দায় স্বীকার করে জেএমবি জঙ্গির জবানবন্দি

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



টাঙ্গাইলের গোপালপুরে দর্জি নিখিল চন্দ্র জোয়ার্দার হত্যাকাণ্ডে জড়িত অভিযোগে গ্রেপ্তার করা ‘নব্য’ জেএমবির এক সদস্য দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল রবিবার টাঙ্গাইলের মুখ্য বিচার বিভাগীয় হাকিম আদালতে জবানবন্দি দেন মোসলেম উদ্দিন ওরফে সোহেল (২২) নামের এই জেএমবি জঙ্গি।

এর আগে গত শনিবার সন্ধ্যায় কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে মোসলেম উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল। তিনি গোপালপুর উপজেলার শাখারিয়া গ্রামের আব্দুল গণি মিয়ার ছেলে।

গতকাল সন্ধ্যায় ডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, মোসলেম উদ্দিনের ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেছেন বিচারক আশিকুজ্জামান।

ডিবি পরিদর্শক অশোক কুমার সিংহ জানান, যে তিনজন নিখিল চন্দ্রের হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিলেন তাঁদের মধ্যে নজরুল ইসলাম ওরফে বাইক নজরুল সম্প্রতি রাজশাহীতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া অন্য আসামি রফিক ওরফে হৃদয় পলাতক। গ্রেপ্তারকৃত মোসলেম উদ্দিন ওই তিনজনের মধ্যে একজন। নিখিল হত্যাকাণ্ডে তাঁরা তিনজন জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে তিনি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

ডিবি কর্মকর্তা জানান, সম্প্রতি কালিহাতী উপজেলার যমুনা নদীর তীরবর্তী এলাকা থেকে জঙ্গিগোষ্ঠী জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় করা মামলায় মোসলেমও আসামি। তিনি বলেন, জবানবন্দিতে মোসলেম বলেছেন যে গোপালপুরের শাখারিয়া গ্রামের সুমন নামের ‘নব্য’ জেএমবির এক সদস্য তাঁকে জঙ্গি কর্মকাণ্ডে উদ্বুদ্ধ করেছেন। সুমন পলাতক রয়েছেন।


মন্তব্য