kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দুদকের বিরুদ্ধে রাজউক কর্মীদের বিক্ষোভে সুজনের উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত রাজউকের দুজন প্রকৌশলীকে গ্রেপ্তার করায় দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদকের বিরুদ্ধে রাজউকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিক্ষোভে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ‘সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক’। গতকাল শনিবার সুজন সভাপতি এম হাফিজউদ্দিন খান ও সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা সুজনের পক্ষ থেকে দুদকের সাম্প্রতিক সক্রিয়তা ও উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

এ পদক্ষেপ সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও দুর্নীতি প্রতিরোধের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আমরা মনে করি। সুজন মনে করে, নির্দিষ্ট অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার হওয়ার পরও রাজউককর্মীদের এ বিক্ষোভ সরকার ঘোষিত সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও দুর্নীতিবিরোধী অবস্থানের প্রতি তাদের অনাস্থার পরিচায়ক। এ পরিস্থিতি সত্যিই হতাশাজনক। ’

বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার তার নির্বাচনী ইশতেহার ২০১৪-এ সুশাসন, গণতন্ত্রায়ণ ও ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণের সুস্পষ্ট অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে। দুর্নীতি প্রতিরোধের ক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘ঘুষ, অবৈধ আয়, কালো টাকা, চাঁদাবাজি, ঋণখেলাপি, টেন্ডারবাজি ও পেশিশক্তি প্রতিরোধ এবং দুর্নীতি-দুর্বৃত্তায়ন নির্মূলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নিজেদের সম্পদ, আয়-রোজগার সম্পর্কে সর্বস্তরের নাগরিকদের জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে। ’

আমরা আরো মনে করি, রাজউক কর্মীদের দুদকের নিরপেক্ষতা ও বস্তুনিষ্ঠতার বিষয়ে যদি প্রশ্ন থাকে তবে নির্দিষ্ট রীতি অনুযায়ী তারা আদালতের শরণাপন্ন হতে পারে। কিন্তু এই অনাকাঙ্ক্ষিত আন্দোলনের মাধ্যমে দুদককে অচল করে দেওয়ার হুমকি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। এ ধরনের অবস্থান বাস্তবে বিচারিক প্রক্রিয়ার প্রতি অবমাননাকর। আইনকে তার নিজস্ব গতিতে চলতে দেওয়া উচিত। অভিযোগ যথার্থ কি না, তা নিরূপণের জন্য বিচারিক প্রক্রিয়ার ওপর আস্থা রাখা উচিত।


মন্তব্য