kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নরসিংদীতে তুচ্ছ ঘটনায় হামলা নিহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক, নরসিংদী   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নরসিংদীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলায় এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো দুজন।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় শহরের শিক্ষা চত্বর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ একজনকে আটক করেছে।

নিহত ব্যবসায়ীর নাম আব্দুর রশিদ (৪০)। তিনি শহরের বানিয়াছল এলাকার আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে। ওই এলাকায় তাঁর ওয়ার্কশপ রয়েছে।

এ ঘটনায় আহত দুজন হলেন রশিদের দুই ভাই খোরশেদ আলম (৪৫) ও আসাদ মিয়া (৫০)। তাঁদের মধ্যে খোরশেদকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও নিহত ব্যবসায়ীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নরসিংদী শহরের বানিয়াছল এলাকার অটোরিকশাচালক স্বপন মিয়া ভেলানগর থেকে যাত্রী নিয়ে শহরের দিকে আসছিলেন। শিক্ষা চত্বর এলাকায় আসার পর সামনে থাকা একটি অটোরিকশার সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই অটোরিকশার চালক স্বপন মিয়াকে মারধর করেন। তিনি ঘটনাটি বাড়িতে জানান। খবর পেয়ে স্বপনের আত্মীয় ব্যবসায়ী আসাদ মিয়া তাঁর দুই ভাই রশিদ ও খোরশেদকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। কিন্তু কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই ২০-৩০ জনের একটি দল তাঁদের ওপর হামলা চালায়। তারা ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি তিন ভাইকে কুপিয়ে জখম করে। রশিদ ঘটনাস্থলেই মারা যান।

আহত আসাদ মিয়া বলেন, সন্ত্রাসীরা যখন তাঁদের কোপাচ্ছিল তখন তিনি দৌড়ে গিয়ে পুলিশের সাহায্য চান। কিন্তু পুলিশ তাঁদের সাহায্য করেনি। তিনি বলেন, ‘পুলিশ যদি এগিয়ে আসত তাহলে আমার ভাই মারা যেত না। ’

নরসিংদী সদর মডেল থানার ওসি গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, রশিদের ভাতিজি জামাই স্বপনের সঙ্গে শিক্ষা চত্বর এলাকার কিছু ব্যক্তির বিরোধ হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, এ বিরোধের জের ধরেই প্রতিপক্ষরা রশিদ ও তাঁর দুই ভাইয়ের ওপর হামলা চালায়।

ওসি বলেন, ‘ঘটনাটি আমরা এখনো পুরোপুরি নিশ্চিত নই, ঠিক কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। তদন্ত চলছে, শেষ হলেই বলা যাবে। ’


মন্তব্য