kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাপাহার সীমান্ত

ঝুঁকি নিয়ে ভারত থেকে গরু আনছে চোরাকারবারিরা

নওগাঁ প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



কোরবানি ঈদ সামনে রেখে নওগাঁর সাপাহার সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে চোরাই পথে গরু আনতে মরিয়া হয়ে উঠেছে চোরাকারবারিরা। সীমান্তে নিষেধাজ্ঞা ও নজরদারি থাকলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা প্রতি রাতে ভারতের অভ্যন্তরে গিয়ে গরু আনছে বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন চোরাকারবারি জানিয়েছে, এ জন্য সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কিছু সদস্য ও স্থানীয় প্রশাসনকে তাদের ম্যানেজ করতে হচ্ছে। তবে এ কথা স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার ও থানা প্রশাসন অস্বীকার করেছে।

জানা যায়, ২০১৩ সালে নওগাঁ-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাধন চন্দ্র মজুমদার সাপাহার সীমান্ত এলাকার বসবাসকারীদের জন্য খঞ্জনপুর সীমান্তে একটি বিট করিডর ব্যবস্থা চালু করেন। এরপর ছয় মাসেই ওই করিডর থেকে কোটি টাকার রাজস্ব আয় হয়। এরপর বেশ কয়েকজন রাখাল বিএসএফের গুলিতে নিহত ও আহত হওয়ার ঘটনায় করিডরটি বন্ধ হয়ে যায়। পরে বিজিবি সদস্যরাও সীমান্তে কঠোর অবস্থান নিলে ভারত থেকে গরু আসা শূন্যের কোঠায় নেমে আসে। কিন্তু কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে এক শ্রেণির চোরাকারবারি ভারত থেকে গরু আনতে শুরু করেছে। বিশেষ করে উপজেলার হাপানিয়া, কলমুডাঙ্গা, পাতাড়ী, বামনপাড়া, সোনাডাঙ্গা ও পত্নীতলা হাটশাওলী, রাধানগর, শীতলমাঠ সীমান্ত দিয়ে গরু আসছে।

 


মন্তব্য