kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

পুরান ঢাকাবাসীর সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি চায় না কর্তৃপক্ষ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পুরান ঢাকায় কেন্দ্রীয় কারাগারের জায়গা নয়, বরং একখণ্ড জমি পাওয়াই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল দাবি। সরকারের সুবিধাজনক স্থানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি জায়গার ব্যবস্থা করার আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

সরকারের সর্বোচ্চ মহলের আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান শিক্ষার্থীদের একাডেমিক কার্যক্রমে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাসের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। সেই সঙ্গে বলা হয়, ঐতিহ্যগতভাবেই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় তথা সাবেক জগন্নাথ কলেজের সঙ্গে পুরান ঢাকাবাসীর যে নিবিড় সম্পর্ক এর অবনতি চায় না কর্তৃপক্ষ।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শূন্য আবাসনব্যবস্থা-সংবলিত দেশের একমাত্র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা প্রতিবছরের মতো এবারও দীর্ঘদিন ধরে হলের জন্য আন্দোলন করে আসছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি মাঝেমধ্যে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে। কাছাকাছি কোনো খালি জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনা না থাকায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জায়গাটি বরাদ্দ করার জন্য ছাত্ররা দাবি জানায়। এ জায়গায় কী করা হবে তা বিস্তারিতভাবে জানা না থাকায় এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত খবরের ভিত্তিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল থেকে সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকারকে জানানো হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতার স্মৃতি রক্ষার্থে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে যেসব স্থাপনা তৈরি করা হবে এবং পরে এখানে যেসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে তা করার সক্ষমতা অন্য যেকোনো প্রতিষ্ঠানের চেয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশি রয়েছে। তাই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জায়গা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুকূলে বরাদ্দ করার জন্য একাডেমিক কাউন্সিল আবেদন জানায়। পরে পুরান ঢাকাবাসী বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে এর বিরোধিতা করছে। ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে এলাকাবাসীর পাল্টাপাল্টি অবস্থান একেবারেই কাম্য নয়।


মন্তব্য