kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবেই থাকছে কারাগারের স্থানটি

‘হল নির্মাণের সুযোগ নেই’

ওমর ফারুক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের স্থানে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল নির্মাণের কোনো সুযোগ নেই। ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবে জায়গাটিকে সংরক্ষণ করা হবে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও কারাগার স্থানান্তরের পর সেই জায়গা ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবেই রাখা হয়েছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জায়গাটিতে আবাসিক হল নির্মাণের দাবি জানানোর পরিপ্রেক্ষিতে কারা কর্তৃপক্ষ এসব কথা জানিয়েছে।

এক কারা কর্মকর্তা কালের কণ্ঠকে জানান, ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার কেরানীগঞ্জে স্থানান্তরের অনেক আগে থেকেই ফাঁকা হওয়া জায়গাটিতে কী করা হবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সেই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে ওয়াকিবহাল। এ অবস্থায় সেখানে আবাসিক হল নির্মাণের দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে কর্ণপাত করার সুযোগ নেই। তা ছাড়া কারারক্ষীদের জন্য একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র দরকার। এই জায়গার একটি অংশে সেটি করা যাবে। তা বাস্তবায়িত হলে সেখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে কারারক্ষীরা কর্মদক্ষতা বাড়ানোর সুযোগ পাবেন।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার জাহাঙ্গীর কবির বলেন, ‘কারাগারের জায়গাটিতে কী করা হবে সেটি কারাগার স্থানান্তরের আগেই পরিকল্পনা করা আছে। সে অনুযায়ীই কাজ হবে। ’

আরেক কারা কর্মকর্তা বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কারাগার স্থানান্তর হয়েছে। সেসব দেশের কারাগারের স্থানগুলোকে ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবে রাখা হয়েছে। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারটিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার কারা স্মৃতি জাদুঘর রয়েছে। এগুলো ইতিহাস-ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে সেখানে থাকবে। এ ছাড়া থাকবে একটি পার্ক। একটি কনভেনশন সেন্টারও করা হবে। পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাবারের বেশ কিছু রেস্টুরেন্ট করারও কথা রয়েছে। এর বাইরে বেশির ভাগ এলাকা থাকবে খোলা চত্বর, মানুষের হাঁটাচলার জন্য। এখানে হল করার সুযোগ কোথায়? তিনি আরো বলেন, কারাগার স্থানান্তরের পর এই কারাগারের জায়গাটি তো কারা কর্তৃপক্ষেরই। এখানে কারা কর্তৃপক্ষ তার বাহিনীর লোকজনের জন্য প্রশিক্ষণকেন্দ্রসহ নানা কিছু করবে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘কেউ আন্দোলন করতেই পারে। আন্দোলন করলেই আগের সিদ্ধান্ত বদলে যাবে বিষয়টি তো সে রকম নয়। তা ছাড়া কারাগারের স্থানটিতে যাতে কোনো হল না হয় সে জন্যও তো আন্দোলন হচ্ছে। ’


মন্তব্য