kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


এনবিআরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি

জঙ্গিসংশ্লিষ্টদের তথ্য দিতে হবে

ফারজানা লাবনী   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জঙ্গি হিসেবে চিহ্নিত, অভিযুক্ত বা সন্দেহভাজন ব্যক্তির ব্যাংক হিসাব, আয়-ব্যয়, স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ এবং তা বৃদ্ধির পরিমাণসংক্রান্ত প্রতিবেদন সাত কর্মদিবসের মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সমপ্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশ দিয়ে চিঠি পাঠানো হয় এনবিআর চেয়ারম্যানের দপ্তরে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জঙ্গিসংক্রান্ত এ নির্দেশ সুষ্ঠুভাবে পালনে গত মঙ্গলবার এনবিআরের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা শাখা সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেলের (সিআইসি) মহাপরিচালককে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান লিখিত নির্দেশ দেন। এনবিআর সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।  

জানা যায়, জঙ্গি হিসেবে চিহ্নিত, অভিযুক্ত বা সন্দেহভাজন ব্যক্তির বিভিন্ন হিসাবসংক্রান্ত প্রতিবেদন পেতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সময় বেঁধে দেওয়া হলেও অন্যদের ক্ষেত্রে তা হয়নি। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো চিঠিতে অন্যদের হিসাবসংক্রান্ত প্রতিবেদন জরুরি বিষয় হিসেবে বিবেচনা করে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, এনবিআরে পাঠানো চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, নিরাপত্তার স্বার্থে জঙ্গি দমনে সরকার কঠোর অবস্থান নিয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছে। তাই সরকারের গুরুত্বপূর্ণ একটি সংস্থা হিসেবে এনবিআরকে জঙ্গি সম্পর্কিত সব তদন্তকাজ জরুরি ভিত্তিতে সম্পন্ন করতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য নির্ধারিত সময়ে না পেলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তদন্ত ব্যাহত হবে। এনবিআর চেয়ারমান মো. নজিবুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, তদন্তকাজে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডির অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম কালের কণ্ঠকে বলেন, জঙ্গি কার্যক্রমে ব্যবহৃত অস্ত্র, গোলাবারুদ, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সংগ্রহ ছাড়াও নিজেদের খাওয়া, থাকা, নিরাপদ আশ্রয়—সব কাজে বড় ধরনের অর্থের লেনদেন হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে কঠোর নজরদারি থাকলে জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রম গতিশীল হবে।


মন্তব্য