kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফের প্রাণচঞ্চল বসুন্ধরা সিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ফের প্রাণচঞ্চল বসুন্ধরা সিটি

রাজধানীর পান্থপথে অবস্থিত দেশের সবচেয়ে ব্যস্ততম ও আকর্ষণীয় বিপণিবিতান বসুন্ধরা সিটি শপিং মল খুলেছে। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় মার্কেটটি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

আর বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গেই ক্রেতা-দর্শনার্থীর সমাগম শুরু হয়েছে। বিশাল কলেবরের বিপণিবিতানটির ষষ্ঠ তলার সি ব্লকে একটি দোকানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সংস্কার ও নিরাপত্তাজনিত কাজের জন্য কয়েক দিন এটি বন্ধ ছিল।

বসুন্ধরা সিটি শপিং মল কর্তৃপক্ষ জানায়, গতকাল থেকে যথারীতি মার্কেটটি খোলা রাখা হচ্ছে। তবে আগুনে ভবনের ষষ্ঠ তলার সি ব্লক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সেখানে কিছু জায়গায় এখনো সংস্কার কাজ চলছে। এ কারণে মার্কেটের ষষ্ঠ তলা ও সপ্তম তলার সি ব্লক আপাতত বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়া গতকাল অষ্টম তলার ফুডকোর্টে পরিষ্কারের কাজ চলায় সেখানে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। তবে আজ বৃহস্পতিবার থেকে ফুডকোর্ট সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

বসুন্ধরা সিটি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের হেড অব মার্কেটিং এম এম জসিম উদ্দিন গতকাল কালের কণ্ঠকে জানান, ‘রাজধানীসহ সারা দেশের মানুষেরই সবচেয়ে পছন্দের শপিং মল হলো বসুন্ধরা সিটি। এখানে সব সময়ই ভিড় থাকে। অগ্নিকাণ্ডের কারণে কয়েক দিন বন্ধ থাকার পর এটি খুলেছে। মার্কেট চালুর খবরটি অনেকে হয়তো এখনো জানেন না। আশা করা হচ্ছে, ঈদ সামনে রেখে আগের মতোই বসুন্ধরা সিটি জমে উঠবে। ’ তিনি আরো বলেন, ‘ফুডকোর্টে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ চলায় আজ (গতকাল) সেটি বন্ধ ছিল। আগামীকাল (আজ বৃহস্পতিবার) থেকে ফুডকোর্টও চালু হবে। শুধু সংস্কার কাজের জন্য লেভেল সিক্স ও সেভেনের সি ব্লকটি বন্ধ থাকবে। ’

বসুন্ধরা সিটি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার মেজর (অব.) মোল্লাহ মুস্তাক রেজা জানান, প্রয়োজনীয় সংস্কার কাজ শেষে শিগগিরই লেভেল ছয় ও সাতের সি-ব্লকটি খুলে দেওয়া হবে। যাঁরা বসুন্ধরার প্রতি আস্থা রেখে এত দিন এই মার্কেটে কেনাকাটা করেছেন তাঁরা আগের মতোই নিরাপদে সব সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

গতকাল বিকেলে বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে গিয়ে দেখা গেছে, আগের মতোই কেনাকাটা করতে এবং ঘুরতে আসছেন দর্শনার্থীরা। মিরপুর থেকে কসমেটিকস ও সন্তানের কাপড় কিনতে এসেছিলেন গৃহবধূ সাজেদা রহমান। তিনি বললেন, ‘আমি সব সময় এখানেই শপিং করি। ঈদের আগে অগ্নিকাণ্ডের কারণে মার্কেটটি বন্ধ রাখায় টেনশনে পড়েছিলাম। এখন চিন্তা নেই। আগামী সপ্তাহ থেকে এখানে ঈদের কেনাকাটা শুরু করব। ’

শুক্রাবাদের বাসিন্দা তারিকুল ইসলাম বললেন, ‘বাংলামোটরে আমার অফিস। আমার সব কেনাকাটা চলে বসুন্ধরা সিটিতেই। আজ সকালেই জানলাম মার্কেট খুলছে। চলে এলাম। কাল থেকে ফুডকোর্টও খুলবে বলে শুনেছি। ’

প্রসঙ্গত, গত ২১ আগস্ট দেশের প্রথম আধুনিক বহুতল শপিং মল বসুন্ধরা সিটির লেভেল ৬-এর সি ব্লকের একটি জুতার দোকানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস ও বসুন্ধরার নিজস্ব অগ্নিনির্বাপণ কর্মীরা কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা ছাড়াই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আর ডাম্পিং শেষে দুদিন পর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা মার্কেটটি কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেন। এরপর এক সপ্তাহ নানা কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে শপিং মলটি আবার ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপযোগী করে তোলে কর্তৃপক্ষ।


মন্তব্য