kalerkantho


দেশের একমাত্র মহিষ প্রজননকেন্দ্র ঝুঁকিতে

মোশতাক আহমদ   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



খুলনা থেকে রামপালের বিদ্যুেকন্দ্র পর্যন্ত যে নতুন রেললাইন বসানোর কাজ চলছে, তাতে ঝুঁকিতে পড়তে যাচ্ছে বাগেরহাটের ফকিরহাটে অবস্থিত দেশের একমাত্র মহিষ প্রজনন ও উন্নয়ন কেন্দ্রটি। কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য হলো—দেশি মহিষের জাত উন্নয়ন করে সংকর জাতের মহিষ উৎপাদনের মাধ্যমে দুধ ও মাংসের উৎপাদন বাড়ানো।

বর্তমানে সারা দেশে প্রায় ১৫ লাখ মহিষ রয়েছে। একটি দেশি মাদী মহিষ গড়ে প্রতিদিন যেখানে দুধ দেয় মাত্র এক লিটার, সেখানে প্রজনন খামারের সংকর জাতের প্রতিটি মহিষ প্রতিদিন দুধ দেয় ১৫ থেকে ২০ লিটার। বর্তমানে এই কেন্দ্রে ইতালিয়ান মেডিটেরিয়ান মুররা নামক মহিষের বীর্য ব্যবহার করে কৃত্রিম প্রজননের ম্যধ্যমে আরো অধিক উৎপাদনশীল মহিষ উৎপাদন করা হচ্ছে।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, প্রজনন খামারটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে মহিষের প্রজনন কমার পাশাপাশি মহিষের দুধ সংগ্রহও ব্যাপকভাবে কমে যাবে।

মত্স্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আনিসুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যখন রামপাল পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের প্রস্তাব করা হয় তখনই আমরা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে মহিষ প্রজনন খামারের ঝুঁকির বিষয়ে রেলপথ মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেছিলাম। এখনো তারা মাটির একটু ওপর দিয়ে রেললাইনটি নিয়ে যাওয়ার কথা বলছে। কিন্তু যেভাবেই নেওয়া হোক, রেললাইনের কারণে সম্ভাব্য ক্ষতির হাত থেকে প্রজননকেন্দ্রটি রক্ষা করা যাবে না। ’


মন্তব্য