kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ফিটনেস

দুইয়ে মিলে ব্যায়াম

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



দুইয়ে মিলে ব্যায়াম

একা একা ব্যায়াম করা অনেক সময় একঘেয়েমি লাগতে পারে। তখন ব্যায়াম করার আগ্রহ কমে যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। তবে দলীয়ভাবে ব্যায়াম করলেও যেমন একঘেয়েমি আসার সম্ভাবনা কম, তেমনি তা উপভোগ্য হয়েও উঠতে পারে। সঙ্গী পাওয়ার জন্য দূরে যাওয়ার দরকারও নেই, ঘরে একটু চোখ বোলালেই হলো। ঘরের যে কেউ হতে পারে আপনার ব্যায়ামের সঙ্গী। এতে নিজেরও যেমন লাভ, তেমনি সঙ্গীরও। সঙ্গী নিয়ে শুধু ব্যায়াম করলেই হবে না, তা উপভোগ্যও করে তুলতে হবে।

ফলো দ্য লিডার : স্বামী-স্ত্রীতে এ ব্যায়ামটি উপভোগ্য হতে পারেন। প্রতিদিনের হাঁটা ও জগিংয়ের বাইরে এ ব্যায়ামটি করা যেতে পারে। এ ব্যায়ামে একজনকে লিডার হতে হবে। তিনি সামনে থেকে জোরে হাঁটবেন বা জগিং করবেন। তবে হাঁটা বা জগিং করার সময় সোজা হাঁটলে হবে না। পেছনের সঙ্গীকে ধোঁকা দিতে খুশিমতো ইচ্ছা করে ডানে বা বাঁয়ে হঠাত্ করে সরে যেতে হবে। এ সময় পেছনের সঙ্গী সামনের সঙ্গীকে অনুসরণ করবেন। এভাবে এক-দুই মিনিট পর আধা মিনিট বিশ্রাম নিয়ে আবার শুরু করতে হবে। এভাবে ৮-১০ বার করলে ভালো হয়। প্রতিবারই লিডার পরিবর্তনে ব্যায়ামটি আরো উপভোগ্য হয়ে উঠতে পারে।

মিরর ড্রিল : এ ব্যায়ামের জন্য এক মিটার লম্বা দুটি দড়ি প্রয়োজন হবে। দড়ি দুটি মাঝখানে একটু ফাঁক রেখে মাটিতে বিছিয়ে দিতে হবে। মেঝে শক্ত হলে নরম কিছু বিছিয়ে নেওয়া ভালো। এবার দুজন দড়ির দুই পাশে মুখোমুখি দাঁড়াতে হবে। তারপর শুরু হবে অনুশীলন। কে শুরু করবেন, তা প্রথমে ঠিক করে নিতে হবে। প্রয়োজন হলে টসও করা যেতে পারে। প্রথমজন যা করবেন, অন্যজনকে তা-ই করতে হবে। প্রথমজন একবার দুই দড়ির মাঝে পা ফেলবেন, পরমুহূর্তে দড়ির বাইরে—এভাবে যেমন ইচ্ছা তেমন করে সঙ্গীকে ধোঁকা দেওয়ার চেষ্টা করবেন। সঙ্গীর লক্ষ্য থাকবে দ্রুত প্রথমজনের সঙ্গে তাল মেলানো। এভাবে এক থেকে দেড় মিনিট করুন। মিনিট দুই বিশ্রাম নিয়ে আবার করুন। এভাবে ছয়-সাতবার। এ ব্যায়ামটি দ্রুত মেদ কমাতে সাহায্য করবে।

পার্টনার রেজিস্ট্যান্ট বেঞ্চ প্রেস : এ ব্যায়ামের জন্য একটি শক্ত লাঠি বা লোহার রড প্রয়োজন। মাটিতে শুয়ে দুই হাতে ঠিক ওপরে লাঠিটি ধরতে হবে। একজন যখন লাঠি ওপরে তুলবেন, সঙ্গী তখন তা ওপরে তুলতে বাধা দেবেন। লাঠি ওপরে তোলার সময় নিঃশ্বাস ছাড়তে হবে। ১০-১২ বার করার পর স্থান বদল করতে হবে। এ ব্যায়ামে বুক ও কাঁধের পেশি সুগঠিত হবে।


মন্তব্য