kalerkantho


রিটার্নিং অফিসারদের মোবাইল নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



গোপালগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসারদের মোবাইল ফোন নম্বর ক্লোন (নকল) করে প্রার্থীদের কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক রিটার্নিং অফিসার থানায় জিডি করেছেন।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন উপজেলা কৃষি অফিসার, শিক্ষা অফিসার, পাট উন্নয়ন অফিসারসহ কয়েকজন কর্মকর্তা। একটি জালিয়াতচক্র ক্লোন করে এসব কর্মকর্তার মোবাইল ফোন নম্বর ব্যবহার করে প্রার্থীদের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে চাঁদা দাবি করে।

এই রিটার্নিং অফিসারদের সঙ্গে কথা হলে তাঁরা এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি নিয়ে প্রার্থীরা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বললে প্রতারণার বিষয়টি জানা যায়। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উরফি, নিজড়া, গোপিনাথপুর ও চন্দ্রদিঘলিয়া ইউনিয়নের বেশ কয়েকজন চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীকে রিটার্নিং অফিসারদের ফোন নম্বর ক্লোন করে টাকা দাবি করা হয়।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বি এম ওবায়দুর রহমান বলেন, “আমার রিটার্নিং অফিসার উপজেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা। তাঁর মোবাইল নম্বর থেকে গত সোমবার দুপুরে ফোন আসে। ফোনে বলা হয়, ‘আপনি এবং আপনার মনোনীত মেম্বারদের নির্বাচনী ফল তৈরি করা হয়েছে। ফলে আপনাদের নির্বাচিত করা হয়েছে। কিছু খরচপাতি নিয়ে আমার সঙ্গে দেখা করেন। ’ বিষয়টি আমার সন্দেহ হলে আমি নিজেই রিটার্নিং অফিসারের নম্বরে ফোন দিলে তিনি বিষয়টি শুনে চমকে যান। তখন জালিয়াতির বিষয়টি বুঝতে পারি। ”


মন্তব্য