kalerkantho


চার স্থানে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চার স্থানে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ এবং প্রতিপক্ষের হুমকি-হামলার অভিযোগ এনে কয়েক স্থানে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থীরা। এর মধ্যে ফরিদপুরে তিনটি ও নরসিংদীতে একটি ইউনিয়নে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

গতকাল মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে এসংক্রান্ত তথ্য জানানো হয়। এদিকে তৃতীয় দফার নির্বাচন সামনে রেখে রাজবাড়ীর তিন ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীক বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির তিন প্রার্থী। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দ্বিতীয় দফায় ৬৪২টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

ভোট বর্জনকারী বিএনপি প্রার্থীদের অভিযোগ, নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র দখল, জালিয়াতি, কারচুপির আশঙ্কা রয়েছে। এ ছাড়া প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে। সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ করেও প্রতিকার না পাওয়ায় ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর, নওগাঁর পত্নীতলা, মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর ও লৌহজং, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২১ জন আহত হয়েছে। এ ছাড়া কয়েক স্থানে নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, প্রতিপক্ষ প্রার্থীর বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। বিস্তারিত আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

চার বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন : ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বানা, পাচুরিয়া ও টগরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থীরা।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা সদরের কুটুমবাড়ি নামক স্থানে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুস সালাম বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীদের নানা রকম ভয়ভীতি দেখানো হয়। নির্বাচনী প্রচারণার সময় বিএনপির প্রার্থীরা আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও তাঁদের সমর্থকদের দ্বারা নানাভাবে বাধার সম্মুখীন হচ্ছিলেন।

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার পুটিয়া ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সালাউদ্দিন গাজী জিনু ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। গতকাল সকাল ১১টার দিকে ইটাখোলার নিজ নির্বাচনী অফিসে সাংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন তিনি। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, নির্বাচনে সুষ্ঠু পরিবেশ না থাকা এবং দলীয় নেতাকর্মী- সমর্থকদের নিরাপত্তার স্বার্থে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

তিন বিএনপি প্রার্থীর প্রতীক বর্জন : রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দির সাতটি ইউনিয়নে তৃতীয় ধাপের নির্বাচন আগামী ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপির মনোনীত তিন প্রার্থী দলীয় প্রতীক বর্জন করেছেন। ফলে দুই ইউনিয়নে অংশ নিচ্ছেন না বিএনপির প্রার্থী। তবে এক প্রার্থী স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষে আহত ২১ : ঝিনাইদহের মহেশপুরের বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বিদ্রোহী প্রার্থীর চারজন সমর্থক আহত হয়েছে। একই সঙ্গে তিনটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। নওগাঁর পত্নীতলার চণ্ডীপুর গ্রামে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের চারজন আহত হয়েছে। আহতদের পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গত সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁর সনমান্দি ও সাদিপুর ইউনিয়নে প্রার্থী সমর্থন করাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ছয়জনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের কোলাপাড়ায় বিএনপি প্রার্থী কামরুজ্জামান পলাশের বাড়িতে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। লৌহজংয়ের খিদিরপাড়া ইউনিয়নে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে সাতজন আহত হয়েছে। এ সময় তিনটি মাইক্রোবাস ও দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।


মন্তব্য