kalerkantho


পাঁচ স্থানে সহিংসতা আহত ২৫, আটক ৫

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



পাঁচ স্থানে সহিংসতা আহত ২৫, আটক ৫

দ্বিতীয় দফা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন স্থানে প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অনন্ত ২৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ময়মনসিংহের গৌরীপুর ও জামালপুরের কেন্দুয়ায় প্রচারণাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থীর ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া মাদারীপুরের তিন ইউনিয়নে সহিংসতা হয়েছে। এসব ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। বিস্তারিত আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে— 

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের গৌরীপুরের মাওহা ইউনিয়নে প্রচারণাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বিদ্রোহী প্রার্থীর দুই ভাইসহ উভয় পক্ষের পাঁচজন আহত হয়েছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

গত রবিবার সন্ধ্যায় খলতবাড়ী বাজারে একই স্থানে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নূর মোহাম্মদ কালন ও বিদ্রোহী প্রার্থী দেওয়ান খসরুজ্জামান খান বাবুলের সমর্থনে নির্বাচনী পথসভার আয়োজন করা হয়। পথসভার শেষ মুহূর্তে স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষে সংঘর্ষ বাধে।

জামালপুর : জামালপুর সদরের কেন্দুয়া ও মেলান্দহ উপজেলার নাংলা ইউনিয়নে পৃথক সহিংসতায় সাতজন আহত হয়েছে। রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কেন্দুয়ার বিনন্দেরপাড় মোড়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ বাধে। এতে দুজন আহত হয়। এর আগে বিকেলে মেলান্দহ উপজেলার নাংলা ইউনিয়নের চিনিতোলা বাজারে আওয়ামী লীগের মোননিগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়। এর মধ্যে একজনকে গুরুতর অবস্থায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জ সদরের বৌলতলী ইউনিয়নে উজ্জ্বল রায়  নামে এক মেম্বার প্রার্থী সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিনজনকে  গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ : শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নে গতকাল সোমবার প্রচারণার সময় প্রতিপক্ষের হামলায় বিএনপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি মো. রতনসহ অন্তত ছয়জন আহত হয়েছে। বিএনপি প্রার্থী হাজির অভিযোগ, আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নেতৃত্বে ১৫-১৬ জন এ হামলা চালিয়েছে। তবে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শফিকুল ইসলাম মামুন এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

মাদারীপুর : মাদারীপুর সদরের রাস্তি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর আট কর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ছিলারচর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খোয়াজপুরে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী আফজাল হোসেনের ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।


মন্তব্য