kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ভুটানের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে গুরুত্ব প্রধানমন্ত্রীর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাংলাদেশ-ভুটান-ভারত-নেপাল (বিবিআইএন) চুক্তির সফল বাস্তবায়নের পর ভুটান ও এ অঞ্চলের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বাংলাদেশে নিযুক্ত ভুটানের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত পেমা চডেনকে বলেন, ‘বিবিআইএন চুক্তি বাস্তবায়নের পর এখন যোগাযোগের ক্ষেত্রে একটা নতুন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এ অঞ্চলের ব্যবসা ও বাণিজ্যের আরো বিস্তারের এখনই সময়। ’ পেমা চডেন গতকাল রবিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া প্রথম দেশ হওয়ায় বাংলাদেশের মানুষের হূদয়ে ভুটানের একটা বিশেষ স্থান রয়েছে। তিনি বলেন, দুই দেশের ক্ষেত্রে অনুসন্ধান করে দেখার জন্য অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সম্ভাবনাময় খাত হচ্ছে বিদ্যুৎ খাত। তিনি বলেন, ভুটান থেকে বিদ্যুৎ কিনতে বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতা বাড়াতে ব্যবসা ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের জন্য তিনি এ অঞ্চলে বিবিআইএন চুক্তি সম্পাদনের পরিকল্পনা করেছিলেন। বিবিআইএন দেশগুলো এখন উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতার ব্যাপারে একটি কাঠামোর আওতায় একসঙ্গে কাজ করতে এবং তাদের লোকদের মঙ্গলের জন্য তাদের নিজস্ব বাজার সৃষ্টি করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী ভুটানকে সব ধরনের সহায়তার নিশ্চয়তা দিয়ে বলেন, বাংলাদেশ সর্বদা স্থলবেষ্টিতে দেশটির পাশে দাঁড়াবে। এ প্রসঙ্গে তিনি ভুটান ও নেপাল বাণিজ্য ও যোগাযোগের জন্য সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহার করতে পারে বলে এর আগে তার দেওয়া প্রস্তাবের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের উন্নয়নে তাঁর সরকারের প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে বলেন, সরকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করছে, যিনি সর্বদা জনগণের কল্যাণ চিন্তা করতেন। তিনি বলেন, কৃষিভিত্তিক দেশ হিসেবে তাঁর সরকার কৃষিবিষয়ক গবেষণার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে। ফলে এ দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। তা ছাড়া এ দেশে এখন সারা বছরই মৌসুমি ফল ও শাকসবজি জন্মায়।

ভুটানকে সর্বদা সহায়তা করার জন্য রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রতিটি উন্নয়নশীল দেশের জন্য প্রেরণাদায়ক। সূত্র : বাসস।


মন্তব্য