kalerkantho


বাংলাদেশের শতভাগই প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার

তালিকায় স্থান পঞ্চম

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রতিবেশী দেশগুলোতে প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হওয়া জনসংখ্যায় কমবেশি হলেও বাংলাদেশের শতভাগ মানুষই দুর্যোগের শিকার হয় বলে এক জরিপে জানা গেছে। যুক্তরাজ্যের ভেরিস ম্যাপলক্রফটের নেচারাল হ্যাজার্ডস ভালনারেবিলিটি ইনডেক্সে এ তথ্য জানানো হয়।

সূচকে বলা হয়, কী পরিমাণ জনসংখ্যা দুর্যোগের শিকার হয়, এ বিবেচনায় বিশ্বে পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দেশের ১৬ কোটি ৬০ লাখ তথা শতভাগ জনগণই দুর্যোগকবিলত হয়। তালিকার প্রথম চারে আছে যথাক্রমে ভারত, চীন, ইন্দোনেশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। সূচকে আমাদের দেশের ব্যাপারে আরো বলা হয়, বিভিন্ন ধরনের দুর্যোগের মধ্যে বাংলাদেশ কমপক্ষে একটি দুর্যোগের মধ্যে পড়ে এবং দেশের শতভাগ মানুষই সেই দুর্যোগের শিকার হয়। তবে সমুদৃপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশে ঝড় ও বন্যার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়। বলা হয় ভূমিকম্পের কথাও। আমাদের প্রতিবেশী ভারতের ৮২ শতাংশ এবং পাকিস্তানের ৭০ শতাংশ জনগণ প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হয়।

গত বুধবার প্রকাশিত সূচকে বলা হয়, এশিয়াজুড়ে বিভিন্ন বড় নগর ও দেশগুলো উচ্চমাত্রায় প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হয়। কিন্তু দুর্যোগে সবচেয়ে অরক্ষিত অবস্থায় থাকে সাব-সাহারান আফ্রিকার জনগণ। দুর্যোগে ক্ষতির মুখে থাকা সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যার দেশগুলোর মধ্যে সূচকে সামনের দিকে আছে চীন, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, ফিলিপাইন, যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও ব্রাজিল। দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকারি ব্যবস্থাপনার সক্ষমতা বৃদ্ধির ওপর জোর দেওয়া হয়। প্রাকৃতিক দুর্যোগে হতাহত আর রোগভোগের প্রশ্নে সবচেয়ে বেশি অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে আফ্রিকা। এই মহাদেশের ২৫টি দেশের ২৩টিই সবচেয়ে ক্ষতির মুখে থাকে। এ ছাড়া সাব-সাহারা ভূখণ্ডের ১০টি দেশের ৯টি এ তালিকাভুক্ত।

সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা নিয়ে সাইক্লোন, সুপারস্টর্ম এবং ভূমিকম্প—এ তিন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার সবচেয়ে বড় নগরের তালিকার শীর্ষে আছে ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলা। এর পরই রয়েছে জাপানের টোকিও, ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা, দক্ষিণ চীনের ডংগুয়ান। কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে ঢাকা ও কলকাতা। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য