kalerkantho

26th march banner

রাজশাহীতে সিফাত হত্যা মামলা

স্বামীসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী ওয়াহিদা সিফাত হত্যা মামলায় তাঁর স্বামী ও ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার আহম্মেদ আলী রাজশাহী মহানগর হাকিম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

অভিযোগপত্রে যাঁদের আসামি করা হয়েছে তাঁরা হলেন, নিহত সিফাতের স্বামী নগরীর মহিষবাথান এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ আসিফ ওরফে পিসলী, শ্বশুর অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ হোসেন রমজান, শাশুড়ি নাজমুন নাহার নাজলী ও রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক ডা. জোবায়দুর রহমান।

তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আহম্মেদ আলী জানান, তদন্তে প্রমাণ মিলেছে সিফাত আত্মহত্যা করেননি। তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। আঘাতজনিত কারণে সিফাতের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু প্রথমবার ময়নাতদন্ত করে চিকিৎসক সিফাত আত্মহত্যা করেছেন বলে ভুল প্রতিবেদন দিয়েছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তে তাঁকে হত্যার আলামত মিলেছে। ফলে অভিযোগপত্রে প্রথম ময়নাতদন্তকারী ওই চিকিৎসকের নামও রাখা হয়েছে।

ডা. জোবায়দুর রহমান বর্তমানে মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে কর্মরত। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমি পরীক্ষায় যা পেয়েছি, সেটাই প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছি। পরে যাঁরা ময়নাতদন্ত করেছেন তাঁরা যা পেয়েছেন সেটাই দিয়েছেন। তবে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন তাঁরাও দেননি। ’

গত বছরের ২৯ মার্চ রাজশাহী মহানগরীর মহিষবাথান এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে রহস্যজনক মৃত্যু হয় ওয়াহিদা সিফাতের। ঘটনা পর শ্বশুরবাড়ির লোকজন সিফাতের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে প্রচার করে।


মন্তব্য